মেইন ম্যেনু

পাউডারে ক্যানসারের ঝুঁকি : জনসনকে ৪৪০ কোটি টাকা জরিমানা

ট্যালকম পাউডার ব্যবহারে ক্যানসারের ঝুঁকি থাকার বিষয়ে ভোক্তাদের পর্যাপ্ত সতর্ক না করায় যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ ও রসায়ন খাতের বহুজাতিক কোম্পানি জনসন অ্যান্ড জনসনকে সাড়ে পাঁচ কোটি ডলার বা ৪৪০ কোটি টাকা জরিমানা করেছেন দেশটির একটি আদালত।

সোমবার রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, কোম্পানিটির পাউডার ব্যবহারের কারণে ডিম্বাশয়ে ক্যানসার হয়েছে অভিযোগ করে এক নারী মামলা করেন। ওই মামলার তিন সপ্তাহের বিচারিক কার্যক্রম শেষে যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরি অঙ্গরাজ্যের আদালত উল্লিখিত রায় দেন।

ট্যালকম পাউডারে ক্যানসারের ঝুঁকির বিষয়ে পর্যাপ্ত সতর্ক না করার অভিযোগে জনসন অ্যান্ড জনসনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে এক হাজার ২০০ মামলা করা হয়।

সর্বশেষ মামলা করেন গ্লোরিয়া রিসটেসান্ড নামে এক নারী। ওই মামলার রায়ে স্থানীয় সময় সোমবার আদালত বলেন, মোট জরিমানার মধ্যে ৫০ লাখ ডলার বা ৪০ কোটি টাকা ওই নারীকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে দিতে হবে। আর বাকি পাঁচ কোটি ডলার বা ৪০০ কোটি টাকা শাস্তিমূলক খেসারত হিসেবে কোম্পানিকে দিতে হবে।

এ বিষয়ে জনসন অ্যান্ড জনসনের মুখপাত্র ক্যারল গুডরিচ গণমাধ্যমকে বলেন, এই রায়ে ৩০ বছরের গবেষণার ফল নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হলো। কোম্পানির কর্তৃপক্ষ এই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করবে। আর পণ্যের নিরাপত্তার বিষয়ে কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

মামলার বাদী গ্লোরিয়া রিসটেসান্ড অভিযোগ করে বলেন, তিনি কয়েক দশক ধরে তাঁর যৌনাঙ্গে জনসন অ্যান্ড জনসনের ট্যালকম পাউডার ব্যবহার করেছেন। এর মধ্যে আছে শিশুদের উপযোগী বলে বিক্রি হওয়া অনেক পরিচিত জনসনস বেবি পাউডার ও শাওয়ার পাউডার।

বাদীর আইনজীবী জেরে বিজলি বলেন, গ্লোরিয়া ডিম্বাশয়ের ক্যানসারে ভুগছিলেন। তাঁকে অস্ত্রোপচার করতে হয়েছে। এখন তাঁর ক্যানসারের উপশম হয়েছে। তাঁর মক্কেল আদালতের রায়ে সন্তুষ্ট।

বছরের পর বছর ট্যালকম পাউডার ব্যবহারের কারণে ডিম্বাশয়ে ক্যানসার হওয়ার অভিযোগ এর আগেও জনসন অ্যান্ড জনসনের বিরুদ্ধে করা হয়। গত ফেব্রুয়ারিতে এ ধরনের অভিযোগের ভিত্তিতে করা একটি মামলার রায়ে প্রতিষ্ঠানটিকে সাত কোটি ২০ লাখ ডলার জরিমানা করেন মিসৌরির একই আদালত। যে নারী ওই অভিযোগ করেন, তিনি পরবর্তী সময়ে মারা যান।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ভোক্তাদের কাছে সুপরিচিত জনসনের ট্যালকমের বিরুদ্ধে এই ধরনের অভিযোগে আইনজীবীরা অনেক আগ্রহ দেখাচ্ছেন। তবে বিজ্ঞানীরা বলছেন, পাউডারে সত্যিকার বিপদের কিছু আছে কি না তা অমীমাংসিত।

এদিকে নতুন রায়ের পর জনসন অ্যান্ড জনসনের শেয়ারের ব্যাপক দরপতন হয়েছে।