মেইন ম্যেনু

পাউরুটি দিয়েই তৈরি করুন এই দারুণ “বরফি”!

হরেক রকম হালুয়া তো অনেকেই তৈরি করবেন, আপনি কি ভিন্ন কিছু করতে চান? একদম আনকোরা নতুন চমক আনতে তৈরি করতে পারেন এই “পাউরুটির বরফি”। দেখতে দারুণ এই খাবারটি তৈরি করতে ভীষণ সোজা আর খেতেও দারুণ মজাদার। সকলেই একই প্রশ্ন করবেন- “কীভাবে তৈরি করেছো?” অসাধারণ এই নতুন রেসিপিটি পরিবেশন করা হলো আপনাদের জন্যই। তাহলে চলুন, দেখে নিই এক নজরে।

উপকরণ
ফ্রেশ পাউরুটি ১০ পিস
নারিকেল ১ কাপ
চিনি আপনার স্বাদ মত
মিহি কাঠ বাদামের গুঁড়ো ২ টেবিল চামচ (না দিলেও চলবে)
এলাচ গুঁড়ো এক চিমটি
গোলাপ জল কয়েক ফোঁটা
আপনার প্রিয় যে কোন ফ্লেভারের জ্যাম প্রয়োজন মত
ডিম ২টি
ঘন দুধ ১/২ কাপ
ঘি প্রয়োজন মত

প্রণালি
চুলায় নারিকেল ও আপনার স্বাদ মত চিনি দিন। একদম অল্প দেবেন, কারণ নারিকেলটা আমরা বেশী মিষ্টি করবো না। ২ টেবিল চামচ দিলেই হবে।
নারিকেলটা নেড়ে নেড়ে জ্বাল দিন। আঠালো হয়ে গেলে বাদাম ও এলাচ গুঁড়ো দিয়ে নামিয়ে নিন। নামানোর পর কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মিশিয়ে দিন।

পাউরুটিগুলোর চারপাশের বাদামী অংশটুকু ফেলে দিন। তারপর একটি রুটি বেলার বেলন দিয়ে ভালো করে চেপে চেপে বেলে নিন। রুটির টুকরো একদম পাতলা হয়ে যাবে।

এবার রুটির গায়ে ভালো করে জ্যাম মাখান। বেশী পুরু করে মাখাতে হবে না, পাতলা করে মাখালেই হবে।

এবার নারিকেল এই রুটি ওপরে ছড়িয়ে দিন। চাইলে ছড়িয়ে দিতে পারেন, চাইলে লম্বা রেখায় এক পাশেও রাখতে পারেন, যেভাবে আপনার রোল করতে সুবিধা হবে।

নারকেল দেয়া হলে রুটিকে চেপে চেপে রোল করে নিন।, রোল করতে গিয়ে ভেঙে গেলেও ঘাবড়ে যাবেন না। ভাঙা স্থানগুলো বাড়তি রুটি লাগিয়ে জুড়ে দিতে পারেন। জ্যাম লাগানো আছে বলে জোড়া লেগে যাবে। মোটা রোল করতে চাইলে দুটি রুটি একসাথে রোল করতে পারেন।

এবার ডিম, দুধ ও সামান্য একটু চিনি একসাথে ফেটিয়ে নিন। প্যানে ঘি দিন গরম হবার জন্য।

-ঘি গরম হলে এই পাউরুটির রোলগুলো ডিমের মিশ্রণে ডুবিয়ে প্যানে দিয়ে দিন। সাবধানে নেড়েচেড়ে ভেজে নিন সব দিকে। ভাজা হলে তুলে প্লেটে রাখুন।
এবার ঠাণ্ডা হতে দিন রোলগুলো। সম্পূর্ণ ঠাণ্ডা হয়ে গেলে ছুরি দিয়ে বরফির আকারে স্লাইস করে নিন। আর দেখুন ম্যাজিক!

কী দারুণ হয়েছে না আপনার বরফি গুলো? এতে আছে নারিকেল, আছে বাদাম ও গোলাপ জল, একই সাথে আছে মজাদার জ্যাম। সকলকে চমকে দেয়ার মত একটি দারুণ ডিশ