মেইন ম্যেনু

‘পাকিস্তানের কাছে ন্যায্য পাওনা আদায়ে চেষ্টা করছে সরকার’

পাকিস্তানের কাছ থেকে ন্যায্য পাওনা আদায়ে বর্তমান সরকার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

বৃহস্পতিবার বিকেলে দশম জাতীয় সংসদের অষ্টম অধিবেশনে রাজশাহী-৪ আসনের সংসদ সদস্য এনামুল হকের প্রশ্নোত্তরে এ তথ্য জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যে ১৯৭১ সাল এবং এর পূর্ববর্তী সময়ের সব পাওনা আদায়ের লক্ষ্যে পরারাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বাংলাদেশের দাবি উত্থাপন করে আসছে। এর মধ্যে ১৯৭৭, ১৯৮০, ১৯৮৯, ১৯৯২, ১৯৯৭, ২০০৩, ২০০৪, ২০০৫, ২০১০ ও ২০১২ সালের বৈঠক অন্যতম। এ ছাড়া পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের বিভিন্ন বৈঠকে সম্পদের হিস্যাসহ তিনটি অমীমাংসিত বিষয় উত্থাপন করা হয়।’

তিনি আরো বলেন, ১৯৭০ সালের প্রলয়ংকারী ঘুর্ণিঝড়ের পর তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে বৈদেশিক সাহায্য হিসেবে প্রায় ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঢাকায় অবস্থিত স্টেট ব্যাংক অব পাকিস্তানে রক্ষিত ছিল। যা আত্মসাতের উদ্দেশ্যে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন উক্ত ব্যাংকের লাহোর শাখায় স্থানান্তর করা হয়। এই টাকা সরাসরি ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য পাকিস্তানের কাছে বাংলাদেশ দীর্র্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছে।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, পাকিস্তানের কাছ থেকে বাংলাদেশের ন্যায্য পাওয়া আদায়ে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।