মেইন ম্যেনু

পাজামা পরে ঘুমানো ক্ষতিকর

অনেকেই রাতে পাজামা পরে ঘুমান। রাতে পাজামা পরে ঘুমানো স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

কারণ হিসেবে গবেষকরা জানান, রাতে যে পাজামাটি পরিয়ে ঘুমানো হয়, অন্যান্য কাপড়ের মতো তা সবসময় ধোয়া হয় না। একটি পাজামা বারবার পরায় এতে জীবানু জন্ম নেয়। আর তাতেই ঘটতে পারে বিপত্তি। তাই গবেষকরা সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন পাজামা পরার পরামর্শ দিয়েছেন।

গবেষকদের মতে, একটি পায়জামা দুই বার পরার পর পরিবর্তন করা উচিৎ। অথবা সপ্তাহে একবার হলেও ব্যবহৃত পায়জামাটি ধৌত করা উচিত। এতে আপনার কোনো ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

এক জরিপে দেখা গেছে, ১৮ থেকে ৩০ বছর বয়সী পুরুষরা একই পাজামা ১৩ রাত ব্যবহার করেছেন। এবং নারীরা ব্যবহার করেছেন ১৭ বার।

জরিপে অংশগ্রহণকারী শতকরা ৫১ ভাগ নারী-পুরুষ জানিয়েছেন, যদি তাদের ব্যবহৃত পায়জামা থেকে গন্ধ না ছড়ায় তাহলে তারা সেটি ধৌত করেন না।

লন্ডন স্কুল অব হাইজিনি এন্ড ট্রপিকাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক স্যালি ব্লুমফিল্ড জানিয়েছেন, পাজামার ভেতরে যদি ব্যাকটেরিয়া থাকে, তাহলে সেটা গন্ধ শুকে বোঝা যাবে না। কাজেই পাজামাকে সবসময় জীবানুমুক্ত রাখতে হবে। প্রয়োজনে সপ্তাহে একবার হলেও পাজামা ধৌত করতে হবে। সম্ভব না হলে একটি পাজামা দুবার ব্যবহার করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, শুধু পাজামা নয়, বিছানার চাঁদরও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। তা না হলে শরীরের চামড়া সংক্রমিত হতে পারে। কারণ প্রতি ঘণ্টায় মানব শরীর থেকে ৩০-৪০ হাজার কোষ নির্গত হয়।



« (পূর্বের সংবাদ)
(পরের সংবাদ) »