মেইন ম্যেনু

ভালো দামের আশা

পাট কেটে ঘরে তুলতে ব্যস্ত কৃষকরা

রাজশাহীর পুঠিয়া ও পবা এলাকার কৃষকরা পাট ঘরে তুলতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে। কৃষকরা পাট কাটা, জাগ দেয়া ও আঁশ ছাড়ানোর কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফর থেকে জানা যায়, এ বছর জেলায় ১১ হাজার ১১০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ করা হয়েছে। গত বছর জেলায় এটা ছিল ১০ হাজার ২৪৮ হেক্টর। যা গত বছরের চেয়ে ৮৬২ হেক্টর বেশি। এর মধ্যে দেশি পাট চাষ হয়েছে ১৫০ হেক্টর জমিতে ও তোষা জাতের পাট চাষ হয়েছে ১১ হাজার ১১০ হেক্টর জমিতে।

পাট চাষিরা বলছেন, গত বছর ছোট-বড় ডোবাতে তেমন পানি ছিলো না। ফলে পাট জাগ দেয়া অনেক সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছিল। এইজন্য পর্যাপ্ত পানির অভাবে গত বছর পাটের কালচে ভাব যায় নি। তাই পাটের দাম ভালো পাওয়া যায় নি। কিন্তু এবার আগাম বৃষ্টি হওয়ায় পাট জাগ দিতে কোনো সমস্যা হয় নি। তবে ঘন ঘন বৃষ্টি হওয়ায় পাট শুকানো নিয়ে সমস্যায় পড়েছেন পাটচাষিরা।

পুঠিয়ার পাট চাষি রহমত আলী বলেন, এবার পাটের আবাদ ভালো হয়েছে। আমি এবছর এক বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছি। পাট কাটা প্রায় শেষের দিকে। এবার বর্ষা থাকার কারণে পাট জাগ দেয়া ভালো হচ্ছে। বেশি পানি হলে পাটের গায়ের কালচে ভাবটা থাকে না। পাট দেখতে চকচক করে। এবার আশা করছি পাটের দামও ভালো পাবো।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক হযরত আলী জানান, এ বছর কৃষকরা বেশি পাট চাষ করেছে। এছাড়া এবছর পাট চাষের জন্য আবহাওয়া অনুকূলে ছিলো। তারপর ভালো বৃষ্টি হওয়ায় পাট জাগ দেয়াও ভালো হচ্ছে। এর মধ্যে জেলার বিভিন্ন এলাকায় পাট কাটা শুরু হয়ে গেছে। আশা করা যাচ্ছে এবার কৃষকরা পাটের ভালো দাম পাবে।