মেইন ম্যেনু

পানিতে ডুবে মরার অপরাধে বস্তাবন্দী করে নদীতে নিক্ষেপ!

পানিতে ডুবে মৃত্যুবরন করে মহা পর পাপ করে ফেলেছে মরন চন্দ্র (১৮)। তাই তার সাঁজা মৃতদেহ বস্তাবন্দী করে ডাকাতিয়া নদীতে নিক্ষেপ। এমনই অভিনব সাঁজা ভোগ করতে হয়েছে শাহরাস্থি উপজেলার টামটা দক্ষিণ ইউনিয়নের হিন্দু বাড়ির প্রয়াত সুনীল চন্দ্র সরকারের ছেলে মরন চন্দ্র সরকারের।আর এই সাস্তির আদেশ দেন হিন্দু সম্প্রদায়ের স্থানীয় এক ঠাকুর।

মরণ চন্দ্র সরকার জন্ম থেকেই প্রতিবন্ধী ছিলো। ক’দিন পূর্বে তার পিতা সুনিল চন্দ্র সরকার পরলোক গমন করলে মরণ চন্দ্র সরকার তার পিতার শ্বশানে গিয়ে বেশিরভাগ সময় অতিবাহিত করতো ।

গত ১লা আগস্ট বিকাল থেকে পরিবারের লোকজন তাকে না পেয়ে খোঁজাখুজি করতে থাকে। পর দিন সকালে এলাকাবাসী ও পরিবারে লোকজনের সহায়তায় তার বাবার শ্বশানের পাশের পুকুরে জাল দিয়ে তাকে খোঁজাখুজির চেষ্টা করলে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে তার মৃতদেহ সমাহিত করার জন্য পরিবারের সদস্যগণ ঠাকুরের পরামর্শ নিলে ঠাকুর জানায় জলের মরা জলে নিক্ষেপ করতে হয়। সে মতে পরিবারের সদস্যরা তার মরদেহ ডাকাতিয়া নদীতে বস্তাবন্দীকরে ফেলে দেয়।

৩রা আগস্ট তার মরদেহ ভেসে উঠার সংবাদ পেয়ে শাহরাস্তি থানা পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে চাঁদপুরে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করে। শাহরাস্তির মডেল থানার এসআই কামাল উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ ব্যাপারে শাহরাস্তি থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।