মেইন ম্যেনু

পানিতে ভেসে দেড় হাজার মাতাল কানাডায়

কানাডার সেন্ট ক্লায়ার নদীর তীরে সোমবার যে ঘটনার সমাপ্তি হলো, তা নিয়ে নাটক হলে এর নাম দেওয়া যেতে পারে ‘গন উইথ দ্য উইন্ড’ অথবা ‘হোয়াটএভার ফ্লোটস ইউর বোট’কিংবা ‘ওহ! কানাডা।’ এবার সেই নাটকের গল্পে আসা যাক। সোমবার সেন্ট ক্লায়ার নদীতে উৎসবরত প্রায় দেড় হাজার মাতালকে প্রবল বাতাস আমেরিকার উপকূল থেকে নিয়ে প্রতিবেশী কানাডার উপকূলে নিয়ে ফেলেছে।

গত ৩৯ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যের আদিবাসীরা পোর্ট হুরন ফ্লোট ডাউন নামে একটি উৎসব করে আসছে। উৎসবের দিন অংশগ্রহণকারীরা মদ পান করে উন্মত্ত মাতাল হয়ে সেন্ট ক্লায়ার নদীতে নৌকা ভাসায়। গত সোমবার ছিল পোর্ট হুরন ফ্লোট ডাউন উৎসব। এই উৎসবে অংশ নিয়েছিল ১ হাজার ৫০০ জন। মাতাল হয়ে মনের সুখে সবাই যখন নদীতে নিজেদের নৌকা ভাসিয়েছিলেন, তখন বাতাসেও মনে হয় সেই মাতলামির ছোঁয়া লেগেছিল। উন্মত্ত বাতাস সব নৌকা ও ডিঙ্গিগুলোকে প্রচণ্ড বেগে ভাসিয়ে নিয়ে যায় কানাডার সারনিয়া শহর উপকূলে। এসময় সারনিয়ার পুলিশ, গ্রেট লেকে অবস্থানরত কানাডার কোস্টগার্ড এবং কানাডার রেডক্রস দ্রুত ছুটে এসে মাতালদের উদ্ধার করে তীরে নিয়ে আসে। পরে তাদের বিশেষ নৌযানে করে আমেরিকায় দিয়ে আসা হয়।

সারনিয়া পুলিশের কনস্টেবল জন সত্তোসান্তি বলেন, ‘ নৌকাগুলোর ওপর চালকদের নিয়ন্ত্রণ না থাকায় সেগুলোকে দ্রুত ভাসিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। মূলত বাতাস আর প্রবল স্রোত এগুলোকে পরিচালিত করছিল। পরে তারা এখানে এসে আছড়ে পড়ে।’