মেইন ম্যেনু

পানি উন্নয়ন প্রকল্পে ১০ লাখ ডলার দেবে এডিবি

রাজধানী ঢাকার পানি সম্পদ পরিকল্পনা ও ভূ-উপরিভাগের পানি ব্যবহার প্রকল্পে ১০ লাখ ডলারের কারিগরি সহায়তা দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)।

বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় আট কোটি টাকা। একই প্রকল্পে সহায়তা দিবে জাপানও।

বৃহস্পতিবার বিকেলে পরিকল্পনা কমিশনের এনইসি সম্মেলনে কেন্দ্রে অর্থনৈতিক সর্ম্পক বিভাগের (ইআরডি) সঙ্গে এডিবি’র এ বিষয়ে চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে ইআরডি’র সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন এবং এডিবি’র পক্ষে সংস্থার কাট্রি ডিরেক্টর কাজুহিকো হিগুচি স্বাক্ষর করেন। জাপান এম্ব্যাসির কনস্যুলার মিৎসুটেক নুমাহাতা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে কাজুহিকো হিগুচি বলেন, রাজধানীর পানি সমস্যা সমাধানে এখন থেকে ভূ-উপরিভাগের পানি ব্যবহার শুরু করতে হবে। কারণ ভূ-গর্ভস্থ পানির স্তর নেমে যাওয়া একটি দেশের জন্য চরম হুমকিস্বরূপ।

আবহাওয়া অধিদপ্তর প্রকল্প বাস্তবায়নে নির্বাহী সংস্থা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে। আর এতে সহযোগি সংস্থা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে ঢাকা ওয়াসা।

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ভূ-গর্ভস্থ এবং ভূ-উপরিস্থ পানি এবং পানিস্তর উন্নয়নে সরকার ব্যাপক পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিল। এ জন্য ব্যয় ধরা হয়েছিল ২৮৩ কোটি ৩০ লাখ টাকা। প্রকল্প বাস্তবায়নে অর্থ সহায়তা দিচ্ছে নেদারল্যান্ডস সরকার ও এডিবি। একই সঙ্গে প্রকল্পের মেয়াদ ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ঢাকা শহরে প্রতিদিন পানির গড় চাহিদা ২২০ কোটি লিটার, যার ৭৮ ভাগ আসে ভূ-গর্ভস্থ উৎস থেকে। ২০৩৫ সালের মধ্যে এই চাহিদা বেড়ে দৈনিক ৬০০ কোটি লিটারে দাঁড়াবে। এতে ভূ-গর্ভস্থ পানির ওপর বাড়তি চাপ পড়ছে।

অপরদিকে ভূ-গর্ভস্থ উৎস থেকে পানি তোলায় প্রতিবছর পানির স্তর ২ থেকে ৩ মিটার নিচে নেমে যাচ্ছে। এসব বিষয় মাথায় রেখেই সরকার ২০৩০ সালের মধ্যে ঢাকা মহানগরীর চাহিদার ৭০ ভাগ পানি ভূ-উপরিস্থ উৎস থেকে সরবরাহের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। প্রকল্পটি এই পরিকল্পনার একটি অংশ। প্রকল্পের মেয়াদ ধরা হয়েছে ২০১৭ সালের অক্টোবর পর্যন্ত।