মেইন ম্যেনু

পান কেন কবিরাজ? জেনে নিন

সাধারণত অতিথি আপ্যায়নে কিংবা কোন বৈঠকে আলোচনা জমাতে পানের জুরি নেই। পান খাওয়ার রীতি আমাদের দেশে অনেক পুরনো। এছাড়া পূজায় সনাতন ধর্মে পান পাতার ব্যবহার রয়েছে। এরপরও অনেকে পান খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর বলে মনে করেন। কিন্তু এই ধারণা মোটেই ঠিক নয়। কারণ পান পতার অনেক উপকারিতা রয়েছে। গবেষণাও তাই বলে।

আয়ুর্বেদ শাস্ত্র অনু‌যায়ী পান খেলে ক্যান্সারে মতো ভয়াবহ রোগ দূর করা সম্ভব। তাহলে আসুন জেনে নিই পানে কি কি উপকারী গুণ রয়েছে?

* বাতের ব্যথা দূর করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে পান। পান থেঁতো করে একটা কাপড়ের পুটুলিতে ভরুন। এবার গরম পানিতে ওই পুঁটলি ডুবিয়ে ব্যথা জায়গায় সেঁক দিন। আরাম পাবেন।

* পান পাতায় অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল রাসায়নিক থাকে। তাই পান পাতা বেটে ক্ষতস্থানে দিলে দ্রুত নিরাময় সম্ভব। পান পাতা ব্যবহার করলে সংক্রমণের ভয়ও থাকে না।

* পান তার নিজের বিশেষ ধরণের গন্ধের জন্য বিখ্যাত। পান খেলে মুখের দুর্গন্ধ নাশ হয়। পান খেলে মুখের ভিতরের অ্যাসকরবিক অ্যাসিডের স্তর স্বাভাবিক থাকে। ‌যার ফলে বিভিন্ন রোগ দূরে থাকে।

* পান খেলে দাঁত পরিষ্কার হয়, ফলে দাঁতে ক্ষয়ের সম্ভবানা থাকে না।

* গলা খুসখুস করলে পান পাতার ৫ মিলিলিটার রস এক গ্লাস গরম পানিতে মিশিয়ে আস্তে আস্তে খান। আরাম পাবেন। বিখ্যাত অনেক গায়ক গলা ভালো রাখতে এই টোটকা ব্যবহার করেন।

* পেটে ব্যথা বা কোষ্টকাঠিন্য হলে পান পাতার ওপর নারকেল তেল লাগিয়ে মোমবাতির ওপর ধরুন। এবার পেটে সেঁক দিন। পেটে ব্যথা থেকে মুক্তি মিলবে।