মেইন ম্যেনু

পার্কের মধ্যে একাই সন্তান প্রসব করলো স্কুলছাত্রী! অতঃপর যা ঘটলো…

লন্ডনের উত্তর ওয়েলেসের একটি পার্কে গত বছরের অক্টোবরে সন্তান প্রসব করে দেশজুড়ে আলোচনায় এখন এক স্কুলছাত্রী। ঘটনার পর থেকেই ওই ছাত্রীকে পুলিশ হন্নে হয়ে খুঁজছে। সন্তান প্রসবের পর শিশুটির ভাগ্যে আসলে কী ঘটেছিল সেটাই জানতে চাচ্ছে পুলিশ।

পুলিশের ধারণা শিশুটি বেঁচে নেই। আজ সোমবার লন্ডনের প্রভাবশালী ট্যাবয়েড সান পত্রিকা এ ব্যাপারে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।এর পরই ইস্যুটি নিয়ে হৈ চৈ শুরু হয়।

কারণ মেয়েটি কোন রকম চিকিৎসা সহায়তা ছাড়াই বাড়ির বাইরে সন্তান প্রসব করেছিল। ধারণা করা হচ্ছে মেয়েটি অন্তঃসত্তা হওয়ার বিষয়টি তার পরিবারের কাছে গোপন রেখেছিল।

তবে সন্তান জন্মদানের পর ছাত্রীটি ও তার শিশু সন্তানের কী হয়েছিল পুলিশ এখনো তা পর্যন্ত জানতে পারে নাই। বিষয়টি জানার জন্যই পুলিশ ওই ছাত্রীকে খুঁজলেও এই দীর্ঘ সময়ে তার সন্ধান পাওয়া যায়নি।

তবে পুলিশের ধারণা, শিশুটি হয়তো বেঁচে নেই। তবে পার্কের সে স্থানে ছাত্রীটি প্রসব করেছিল সেখান থেকে বিভিন্ন উপাদান সংগ্রহ করে ডিএনএ পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে এবং ছাত্রীটিকে খুঁজে বের করতে পুলিশ অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছে।

পুলিশ বলছে, আমরা শিশু সন্তানটির ওপর ভিত্তি করেই অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছি। তবে যে কারণেই হোক শিশুটি হয়তো বেঁচে নেই। ছাত্রীটির অন্তঃসত্তা হওয়ার বিষয়টি তার মা অথবা যে কেউ জানতো বলেই সে কারো কাছে সহযোগিতা চায়নি।

একা একাই পার্কে গিয়ে গোপনে সে সন্তান প্রসব করেছে। বাবা-মা যদি তার অন্তঃসত্তা হওয়ার বিষয়টি জানতে পারে সেই ভয়ই বেশি কাজ করেছিল মেয়েটির মধ্যে। তবে উত্তর ওয়ালেসেই মেয়েটির পরিবার বাস করে। কারণ দূর থেকে এসে কেউ এখানে সন্তান প্রসব করার সম্ভাবনা নেই। মেয়েটির সন্ধানে পুলিশের পক্ষ থেকে সাহায্য চাওয়া হয়েছে।