মেইন ম্যেনু

পালোয়ানের দাম ১৩ লাখ

ঈদুল আজহা উপলক্ষে গাবতলীতে কোরবানির পশুরহাটে একটি ‘পালোয়ান’র দাম ১৩ লাখ টাকা চাওয়া হয়েছে। এই পালোয়ানকে ঘিরে রেখেছে প্রায় শতাধিক মানুষ।

মঙ্গলবার রাজধানীর গাবতলীর পশুরহাটে তিন নম্বর হাসিল ঘরের সামনে গিয়ে এমন দৃশ্যই দেখা গেছে।

সেখানে গিয়ে দেখা গেছে, পাশে দাঁড়িয়ে থাকা দর্শনার্থী খুব আগ্রহের সঙ্গে পালোয়ানকে ঘুরে ঘুরে দেখছে। কেউ আবার পালোয়ানের সঙ্গে তুলছে সেলফি। অনেকে আবার কৌতূহলের সঙ্গে জিজ্ঞাসা করছে, এতো বড় গরুর দাম কত?

কথা হয় গরুর মালিক রাজশাহী থেকে আসা মোহাম্মদ মতিন মিয়ার সঙ্গে। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন,‘পালোয়ানের বষয় প্রায় পাঁচ বছর। ও যখন জন্ম নেয় তখন আমার ছোট ছেলে আসাদ নাম রাখে পালোয়ান। জন্মের পর থেকেই ও খুব স্বাস্থ্যবান ছিল। আমার পবিবারের সবাই ওকে খুব যত্ন নিতো।

মতিন মিয়া আরো বলেন, ‘আমার পরিবারে সদস্য সংখ্যা ছয়জন। কিন্তু আমি সব সময় মনে করি যে, আমার পরিবারে সদস্য সংখ্যা ৭ জন। আমার পবিবারের সবাই পালোয়ানকে পরিবারের একজন হিসেবেই গণ্য করে।’

ছোটবেলা থেকে কী খওয়ানো হতো এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘জন্মের পর থেকেই পালোয়ান প্রায় ৭ মাসের মতো তার মায়ের দুধ খেত। সাত মাস পর থেকে বাহাদুর গমের ছাল খেয়েছে প্রতিদিন প্রায় তিন কেজি। সেই সময় থেকে দুই বছর ওকে গমের ছাল, ছোলা ভিজানো খাইয়েছি। পাশাপাশি সরিষার খৈল, ধানের কুড়া, ভূষি খাওয়ানো হয় ওকে। এ পর্যন্ত আনুমানিক প্রায় তিন থেকে সাড়ে তিন লাখ টাকা খরচ হয়েছে বলেও জানান তিনি।’

পালোয়ানের দামের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ওর দাম নির্ধারণ করেছি ১৩ লাখ টাকা। তবে এ দামে বিক্রি নাও হতে পারে। একটু কম-বেশি হতে পারে।