মেইন ম্যেনু

পাসপোর্ট ফেরত দেওয়ার হিড়িক যুক্তরাষ্ট্রে!

চলতি বছরের শেষ তিন মাসে রেকর্ড পরিমাণ এক হাজার ৪২৬ জন ফেরত দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পাসপোর্ট। অনেকের কাছেই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব সোনার হরিণ। এটি পাওয়ার জন্য কতই না পরিশ্রম করেন তারা। অথব চলতি বছরের শেষ তিন মাসে রেকর্ড পরিমাণ এক হাজার ৪২৬ জন ফেরত দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পাসপোর্ট!

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি তথ্যের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, চলতি বছর অক্টোবর পর্যন্ত দেশটির নাগরিকত্ব বাতিল করেছে তিন হাজার ২২১ জন। তবে এই সংখ্যা আগামী দুই মাসে আরো বাড়তে পারে। গত বছর যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব বাতিল করেছে তিন হাজার ৪১৫ জন।

সিএনএন জানায়, গত ২০১৪ সালে নাগরিকত্ব ছাড়ার সংখ্যা ২০০৮ সালের চেয়ে চারগুণ বেশি।

যুক্তরাষ্ট্রের অনেক বিশেষজ্ঞের মতে, দেশটির কর সংক্রান্ত জটিলতার কারণে বিরক্ত হয়ে অনেকে নাগরিকত্ব ত্যাগ করছেন। এ ছাড়া নাগরিকত্ব ত্যাগের পেছনে আরো কারণ আছে।

অন্যান্য দেশের চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কর ব্যবস্থা বেশ জটিল। যেখানেই থাকা হোক না কেন, আর আয় যতই কম হোক না কেন কর দিতেই হবে। বিদেশে থাকা অনেক যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকই কর জটিলতায় হয়রানির শিকার হন। কর তো আছেই এর সঙ্গে আছে আইনজীবী ও হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তাদের ব্যয়। এই কারণে বিদেশে বসবাসকারী অনেক মার্কিনি ওই দেশেরই নাগরিকত্ব নিয়ে নেন।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা জানান, কর ব্যবস্থা আরো জটিল হচ্ছে। বিদেশে থাকা মার্কিন নাগরিকদের ওই দেশের সম্পদেরও হিসাব দিতে হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের নতুন আইন অনুযায়ী বিদেশে থাকা কোনো মার্কিন নাগরিক ১০ হাজার মার্কিন ডলারের বেশি আয় হলে কর দিতে হয়।



« (পূর্বের সংবাদ)