মেইন ম্যেনু

পাহাড়ি এলাকার পাশ দিয়ে এই ছোট ছোট পতাকা টাঙানো থাকে কেন?

আসলে বৌদ্ধ ধর্মেই মূলেই এই পতাকা জড়িয়ে রয়েছে। প্রার্থনার জন্য যে পতাকা ব্যবহৃত হয়, বৌদ্ধ ধর্মে তার নাম ‘দর চো’।

দার্জিলিং হোক অথবা অন্য হিল স্টেশন। পাহাড়ি এলাকায় গেলে সার দিয় নানা রংয়ের ছোট ছোট পতাকা টাঙিয়ে রাখার দৃশ্য নিশ্চয়ই চোখে পড়েছে। বিশেষত, বৌদ্ধ উপাসনাস্থলের আশপাশে এই দৃশ্য চোখে পড়তে বাধ্য! কিন্তু কেন এইভাবে বিভিন্ন রংয়ের পতাকা টাঙানো হয় কখনও ভেবে দেখেছেন? দূরে বরফে ঢাকা সাদা পাহাড় শৃঙ্গ থাকায় অথবা আকাশ পরিষ্কার থাকলে হাওয়ায় উড়তে থাকা এই পতাকাগুলি নিঃসন্দেহে হিল স্টেশনের সৌন্দর্য অনেকটাই বাড়িয়ে দেয়। কিন্তু শুধুই কি সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য এই পতাকাগুলি টাঙানো হয়, না কি এর সঙ্গে নির্দিষ্ট ধর্মীয় বিশ্বাসও জড়িয়ে রয়েছে?

আসলে বৌদ্ধ ধর্মেই মূলেই এই পতাকা জড়িয়ে রয়েছে। প্রার্থনার জন্য যে পতাকা ব্যবহৃত হয়, বৌদ্ধ ধর্মে তার নাম ‘দর চো’। ‘দর’ শব্দটির অর্থ স্বাস্থ্য, সম্পদ, সুখ, সৌভাগ্য, আয়ু বৃদ্ধি করা। এবং ‘চো’ শব্দটি জীব জগতকে বোঝায়। ছোট ছোট পতাকাগুলি হাওয়ার সাহায্যে তার চারপাশের এলাকায় সুখ, সৌভাগ্য এবং শুভ জিনিসের বার্তা বয়ে আনে বলেই বৌদ্ধ ধর্মে বিশ্বাস করা হয়। জল, আগুন, মাটি এবং বায়ুর মতো যে উপাদানগুলি দিয়ে পরিবেশ এবং জীব জগতের শারীরিক গঠন হয়, সেগুলিকে বোঝানোর জন্য এক একটি পতাকার রং ব্যবহৃত হয়ে থাকে। বৌদ্ধদের ধর্মীয় বিশ্বাস অনুযায়ী, কেউ অসুস্থ হলে তাঁকে সুস্থ জীবনে ফেরানোর জন্য তাঁর শরীরের উপরে বিশেষভাবে সাজিয়ে এই পতাকাগুলি বিছিয়ে দেওয়া হয়। পাহাড়ি এলাকায় দেবতাদের সন্তুষ্ট করার জন্যই প্রথম এই পতাকাগুলির ব্যবহার শুরু হয়েছিল। এবারে দেখে নেওয়া যাক, কোন রংয়ের পতাকা ঠিক কী অর্থে ব্যবহৃত হয়।

প্রতিটি রংয়ের পতাকা আলাদা আলাদা অর্থ বহন করে।
নীল রংয়ের পতাকার মানে আকাশ বা মহাশূন্য। পবিত্রাতা অথবা সুস্থতা বোঝাতে এই রংয়ের পতাকা ব্যবহৃত হয়। বৌদ্ধদের ধর্মীয় বিশ্বাস অনুযায়ী, এই নীল রংকে ভেবে নিয়ে ধ্যান করলে ক্রোধকে বিচক্ষণতায় বদলে ফেলা যায়।

সাদা রংয়ের পতাকার অর্থ বায়ু। এই রংয়ের পতাকার কথা ভেবে ধ্যান করলে বিভ্রমকে দূর করে বাস্তবিক বিচক্ষণতার সন্ধান পাওয়া যায়।

লাল পতাকা দিয়ে আগুনকে বোঝানো হয়। আগুনের মাধ্যমে আসলে জীবজগতের অভ্যন্তরীণ এবং বাহ্যিক শক্তি বা এনার্জিকে বোঝানো হয়।

সবুজ পতাকার অর্থ জল এবং প্রকৃতি। অনেকেরই বিশ্বাস, এই রংয়ের পতাকার কথা একাগ্র মনে চিন্তা করলে হিংসা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

হলুদ রংয়ের মানে পৃথিবী। জীবজগতের কঠিন উপাদানগুলিকে হলুদ পতাকার মাধ্যমে বোঝানো হয়। পৃথিবীর অভ্যন্তরীণ উপাদানগুলি বলতে এক্ষেত্রে হাড়, দাঁত, ত্বক এবং শারীরিক শক্তির উৎসকে বোঝানো হয়।
অতএব, পরের বার কোনও পাহাড়ি এলাকায় গিয়ে সার দিয়ে টাঙিয়ে রাখা নানা রংয়ের ছোট ছোট পতাকা দেখলে আপনিও বুঝতে পারবেন, বৌদ্ধ ধর্মের ঠিক কোন বিশ্বাস থেকে এই পতাকাগুলি সংশ্লিষ্ট এলাকায় টাঙিয়ে রাখা হয়েছে।