মেইন ম্যেনু

পাহাড়ে ফেলে আসা শিশুটি জীবিত ‍উদ্ধার

শাস্তি হিসেবে বাবা-মায়ের পাহাড়ে ফেলে আসা সেই জাপানী শিশুটিকে জীবত উদ্ধার করেছে উদ্ধারকর্মীরা।

বিবিসির খবরে বলা হয়, ৭ বছর বয়সী ইমাতো তানোকা শিকাবে শহরের সামরিক ঘাঁটির দিকে পাওয়া যায়। সেই সময় ইমাতোকে সুস্থ অবস্থায় পাওয়া যায়।

একজন সামরিক কর্মকর্তা তাকে খুঁজে পান। পরে ইমাতোকে খাবার ও পানি দিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এর আগে শনিবার (২৮ মে) শাস্তি হিসেবে নিজ সন্তানকে পাহাড়ে রেখে আসে ইমাতোর বাবা-মা। এখানেই শেষ নয়, পুলিশের কাছে সন্তান হারিয়ে গেছে বলেও জানান তারা। সন্তানকে ফেলে আসার বিষয়টি খুব সহজেই অস্বীকার করেন এ দম্পতি।

শিশুটির বাবা ৪৪ বছর বয়সী ইমাতো পুলিশকে জানান, বাড়ি ফেরার পথে ছেলেকে তারা সেখানে রেখে আসেন কারণ তাকে শাস্তি দেওয়ার প্রয়োজন ছিল। রাস্তায় অন্য একটি গাড়িকে পাথর ছুঁড়ে মারলে তারা এ শাস্তি প্রদানের সিদ্ধান্ত নেন।

উদ্ধারকর্মীরা জানায়, একা ফেলে আসার কয়েক কিলোমিটারের মধ্যেই পাওয়া গেছে শিশুটিকে। প্রথমে তার কোনো খোঁজ না পেয়ে এতদিনে প্রায় হতাশ হয়ে পড়েছিল উদ্ধারকারী দলটি।

উদ্ধারকর্মীদের মুখপাত্র মানাবু তাকেহারা বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানান, ‘শিশুটিকে সুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। কোনো বড় ধরনের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

ইমাতোর বাবা তার ছেলের জন্য এত মানুষকে কষ্ট দেওয়াতে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই বাবা-মাকে উদাসীনতার জন্য শাস্তি হতে পারে।