মেইন ম্যেনু

পায়ের গোড়ালি ফাটা রোধে মোমবাতি!

শীতের সময় আমাদের শরীরের ময়েশ্চারাইজ ক্রমশ কমতে থাকে। এসময় রুক্ষ ত্বকের কারণে আমাদের শরীরের বিভিন্ন অংশে ফাটলের সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে পায়ের গোড়ালি, হাতের আঙ্গুল ও ঠোঁট খুব অল্পতেই ফেটে যায়। শীত আসতে না আসতে এরকম সমস্যা দেখা যায়।

পায়ের গোড়ালি ফেটে গেলে তা দেখতে যেমন খুব বাজে লাগে, তেমনি সেখানে প্রচণ্ড ব্যথাও অনুভূত হয়। এই সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য কয়েকটি ঘরোয়া উপায় আলোচনা করা হল-

১. মোমবাতির মোম:

পায়ের কর্কশ চামড়ার চিকিৎসার জন্য মোম অনেক উপকারী। মোম ও সরিষার তেল একত্রে মিশিয়ে পায়ের ফাটা অংশে লাগিয়ে রাখুন। এতে এক রাত পড়েই আপনি পার্থক্য বুঝতে পারবেন।

২. গ্লিসারিন ও গোলাপ জল:

গ্লিসারিন এবং গোলাপ-জলের একটি মিশ্রণ তৈরি করুন এবং টানা ১৫ দিন আপনার পায়ে এই মিশ্রণ ব্যবহার করুন। আপনি ফলাফল দেখে বিস্মিত হতে পারেন।

৩. তিলের তেল:

কর্কশ গোড়ালি একটি সাধারণ সমস্যা কিন্তু তিলের তেল ব্যবহারে খুব সহজে এ থেকে আপনি রক্ষা পেয়ে যাবেন। বিছানায় যাবার আগে আপনার কর্কশ পায়ের উপর এটি প্রয়োগ করুন এবং পরের দিন থেকেই আপনি পার্থক্য বুঝতে পারবেন।

৪. কলা:

পাকা কলা আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখতে পারেন। এতেও খুব শীঘ্রই সমস্যার সমাধান হবে।

৫. হলুদ ও তুলসী পাতা:

সমান অংশে হলুদ, তুলসী ও কর্পূরের একটি মিশ্রণ তৈরি করুন এবং এতে সামান্য ঘৃতকুমারী জেল যোগ করুন। এবার, আপনার পায়ে, হাতে ব্যবহার করুন।–সূত্র: জি নিউজ।