মেইন ম্যেনু

পা ওয়ালা সাপ নিয়ে তোলপাড়

সাপের পা নিয়ে অনেক গল্প আছে। কথিত আছে, সাপের পা দেখতে পেলে নাকি তার দিন বদলে যায়! ঠিক তেমনই সাপের পা দেখার ঘটনা ঘটল ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বারুইপুরের ওলঞ্চ গ্রামে। আর এ নিয়ে গ্রামজুড়েই হইচই পড়ে যায়।

বারুইপুরে হইচই পড়ে যাওয়া সাপটির পা নাকি দুটি! বিরল প্রজাতির পদ্ম কেউটে সাপের লেজের দিকের দুই ধারে হাঁসের মতো দুটো পা দেখা গেছে- এমন খবরে মুহূর্তেই উত্তাল হলো এলাকা। গ্রামের মানুষ এবং আশপাশের গ্রামের মানুষ এসে ভিড় করেন ওই অদ্ভুত সাপকে দেখতে। তোড়জোড়ও শুরু করেছিলেন পূজা-অর্চনার। শনিবার সকালে পুলিশ এসে সাপটিকে উদ্ধার করায় গ্রামবাসীর আর সে সুযোগ হয়নি। খবর কলকাতার দৈনিক আজকাল-এর।

জানা যায়, শুক্রবার রাতে বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন গ্রামের চাঁদু মন্ডল। হঠাৎ টর্চের আলোয় দেখেন, রাস্তার ওপর বিষধর পদ্ম কেউটে। চাঁদু প্রথমে সাপটিকে রাস্তা থেকে হটানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু সাপটি তার দিকে তেড়ে আসে। চাঁদু তখন লাঠি নিয়ে সাপটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলেন। তারপর সাপটিকে পোড়াতে গিয়ে দেখেন লেজের দিকে হাঁসের মতো দুটো পা রয়েছে। আর এ কথা প্রচার হয়ে যেতেই গ্রামজুড়ে পড়ে যায় হইচই।

ওই সাপটিকে অলৌকিক মনে করছেন এলাকার মানুষ। অনুতপ্ত চাঁদু বলেন, সাপটিকে মারা ঠিক হয়নি তার। চাঁদুর বৃদ্ধা মা পুষ্পা মন্ডল রীতিমতো আতঙ্কিত। ঠাকুরের কাছে পূজা দেবেন বলে মনস্থ করেছেন তিনি।