মেইন ম্যেনু

পিপাসা লাগে কেন?

অনেক ক্ষণ পানি পান না করলে আমাদের পিপসা লাগে। বিশেষ করে গরমের সময় ঘনঘন পিপাস লাগে। তখন গলা শুকিয়ে আসে। এছাড়া ভয় পেলেও গলা শুকিয়ে এসে পিপাসা লাগে। কিন্তু কেন এমন হয়?

মানুষের রক্তের বেশিরভাগ জুড়ে আছে লবণ ও পানি। এই লবণ-পানিই শরীরের কোষগুলোতে সতেজ রাখে। প্রকৃতপক্ষে শরীরের ওজনের ৭০ ভাগই পানি। আবার রক্তে আছে ৯০ ভাগ পানি। এ পানি সবসময় একই মাত্রায় থাকতে হয়।

কিন্তু অতিরিক্ত পরিশ্রম, গরম আবহাওয়া, ভয় পাওয়া বা অন্য কোনো কারণে ঘেমে গেলে শরীর থেকে প্রচুর পানি বের হয়ে যায়। তখন রক্তে প্রয়োজনীয় পানির অভাব হয়, ফলে কোষগুলোও পানিস্বল্পতায় ভোগে। এই পানি স্বল্পতার কারণেই ত্বক কুঁচকে যায়, ক্লান্তি আসে, ঘুম ঘুম লাগে একই সঙ্গে গলাও শুকিয়ে যায়। এটিই পিপাসা।

এছাড়া আমাদের পেটের যেখানে খাবার জমা হয়, তার নাম পাকস্থলি। এই পাকস্থলিতে বিশেষ একটি স্নায়ু আছে। শরীরে কোনো কারণে প্রয়োজনীয় পানির অভাব হলে, এই স্নায়ুটি উত্তেজিত হয়ে পড়ে। তখনই পিপাসা পায়।

অনেক সময় লালাগ্রন্থি থেকে লালা কম নিঃসরণ হলেও আমাদের পিপাসা পায়। ভয় পেলে এ সমস্যা বেশি হয়।

পানি বা তরল কিছু পান করলে দ্রুতই পিপাস দূর হয়। আর পানির সাথে লবণ যেহেতু দ্রবণীয় সে কারণে ঘামের সাথে লবণও বেরিয়ে যায়। এ কারণে অতিরিক্ত ঘামের কারণে পিপাসা পেলে পানির সঙ্গে লবণ গুলিয়ে পান করা উচিত।