মেইন ম্যেনু

পিসিএল খেলছেন না আসিফ-আমির-বাট!

পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)-এর দিনক্ষন চূড়ান্ত প্রায়। পাকিস্তানের ঘরোয়া এই টি২০ আসরের শুভেচ্ছা দূত হিসাবে নিয়োগ পেয়েছেন দেশটির দুই ক্রিকেট কিংবদন্তী রমিজ রাজা এবং ওয়াসিম আকরাম।
স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে সাজা ভোগ করা তিন পাকিস্তানি ক্রিকেটার সালমান বাট, মোহাম্দ আমির এবং মোহাম্মদ আসিফ এই লিগে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন বলে খবর ছড়িয়ে ছিল। তবে রমিজ রাজা’র বক্তব্য হচ্ছে, এই পাপীদের কোনোমতেই পিএসএল-এ জায়গা দেয়া উচিত হবেনা। তিনি মনে করছেন, এরা পিএসএল-এ খেললে পুরো টুর্নামেন্টের ভাবমূর্তিই ক্ষুন্ন হবে।

২০১০ সালে এই তিন ক্রিকেটার ইংল্যান্ডে স্পট ফিক্সিংয়ে জড়ান। তারপর আইসিসি তাদের ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে। গত ২ সেপ্টেম্বর শেষ হয়েছে তাদের নিষেধাজ্ঞা। আইসিসির পক্ষ থেকে তাদের ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলায় আর নিষোধাজ্ঞা নেই। তবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড তাদের কঠোর মনিটরিংয়ের মধ্যে রেখেছে। সহসা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা হচ্ছে না তাদের।

এদিকে পিএসএল আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে হবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। কিন্তু পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রমিজের ভয়, এই তিন খেলোয়াড়কে সুযোগ দিলে তা নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে পিএসএলএ। যেখানে খেলবেন কেভিন পিটারসেন, সাকিব আল হাসান, ক্রিস গেইলদের মতো আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়।

রমিজ এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘এই বিষয়ে আমার মনোভাব কঠিন। তারা যে অপরাধ করেছে তা ক্ষমার অযোগ্য। ব্যক্তিগতভাবে আমি কখনো তাদের পিএসএলে চাইবো না। এটা এই ইভেন্ট ও পাকিস্তানের ক্রিকেটের জন্য চরম বিপজ্জনক ব্যাপার।’

লাহোর ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমিতে আসিফ ও সালমান অনুশীলন করেন। এরও বিরুদ্ধে রমিজ রাজা। তিনি বলেছেন, এনসিএতে তারা বিশেষ সুবিধা পাচ্ছে। তরুণ খেলোয়াড়দের সাথে অনুশীলন করতে দেয়া হচ্ছে তাদের। পরিচ্ছন্ন পোষাক পাচ্ছে। একাডেমির খাবার খাচ্ছে। এটাও অগ্রহনযোগ্য।

সূত্রঃ দ্যা ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস