মেইন ম্যেনু

পুতিনের চরিত্রে অভিনয়ে ইচ্ছুক লিওনার্দো

রাজনৈতিকভাবে রাশিয়ার সাথে কখনোই মতের মিল ছিলো না আমেরিকার। সেই গোড়া থেকেই এই দুই পরাশক্তি দেশের মধ্যে মতের পার্থক্য। অথচ একজন আমেরিকান অভিনেতা হয়েও রাশিয়ার বর্তমান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের জীবনী নির্ভর চলচ্চিত্রে পুতিনের চরিত্রে অভিনয় করতে আগ্রহী সদ্য গোল্ডেন গ্লোবজয়ী ‘টাইটানিক’ খ্যাত অভিনেতা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও।

জানা গেছে, এরইমধ্যে অস্কারজয়ী মেক্সিকান নির্মাতা আলেজান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতুর ছবি ‘দ্য রেভেনেন্ট’-এ অভিনয় করে তুমুল আলোচিত ডিক্যাপ্রিও। সিনে-সমালোচকদের তুমুল প্রশংসা আর গোল্ডেন গ্লোব জয় করে নেয়া ছাড়াও এরইমধ্যে আসন্ন অস্কারের জন্য সেরা অভিনেতা হিসেবে মনোনীত হয়েছেন তিনি। আর এই তুমুল আলোচনায় থাকা অভিনেতা রাশিয়ার বিতর্কিত রাষ্ট্রপতি পুতিনের চরিত্রে অভিনয়ের আগ্রহের কথা জানিয়ে আলোচনার কেন্দ্রে চলে আসলেন।

তবে কি কারণে তিনি পুতিনের বায়োপিকে অভিনয় করতে আগ্রহী তার কথাও জানিয়েছেন। ডিক্যাপ্রিও এ প্রসঙ্গে জানান, পুতিন খুবই ইন্টারেস্টিং একজন মানুষ। অন্তত আমার চোখে। আমি তার চরিত্রে যদি অভিনয়ের সুযোগ পাই, তবে ভালো লাগবে।

এর আগে পুতিনের সাথে একসঙ্গে হয়ে কাজ করার কথাও উল্লেখ করনে লিওনার্দো। বলেন ২০১০ সালের দিকে সাইবেরিয়ান বাঘকে বিলুপ্তির পথ থেকে ঠেকাতে একসঙ্গে সচেতনতামূলক অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন তারা। আর সেখানেই জীবজন্তুর প্রতি পুতিনের দরদ আর মায়া দেখে অভিভূত হয়েছিলেন তিনি। শুধু তাই না, আর্থিকভাবেও পুতিন ব্যাপক সমর্থন দিয়েছিলেন। এবং এইসব নাকি কোনো ধরনের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিল ছাড়াই মন থেকে পুতিন করেছিলেন।

উল্লেখ্য, আলেজান্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিতুর ছবি ‘দ্য রেভেনেন্ট’-এ দুর্দান্ত অভিনয় করে সম্প্রতি ‘গোল্ডেন গ্লোব ২০১৬’-এর পুরস্কার হাতে নেন ‘টাইটানিক’ ছবির জ্যাক চরিত্রে অভিনয় করা লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও। এই প্রতিযোগিতায় সেরার পুরস্কারটি নিতে তাকে লড়তে হয়েছে ট্রাম্বু ছবির জন্য ব্রায়ান ক্রেনস্টন, স্টিভ জবস ছবির জন্য মাইকেল ফেসবেন্ডার, দ্য ডেনিশ গার্ল-এর জন্য এডি রেডমাইন এবং কনকুশন ছবির জন্য উইল স্মিথের বিরুদ্ধে। এছাড়া অস্কারে পাঁচবার মনোনয়ন পেয়েও অস্কার সেরার পুরস্কার না পেলেও এবার এই পুরস্কারটির জন্য খুব শক্তিশালী দাবীদার মনে করা হচ্ছে তাকে।