মেইন ম্যেনু

পুরুষের চুল পড়ার অন্যতম ৬ কারণ

চুল পড়া ছেলে মেয়ে উভয়ের একটি সাধারণ সমস্যা। কিন্তু চুল পড়ে দ্রুত টাক হয়ে যাওয়া সমস্যাটি বেশির ভাগ সময় ছেলেদের দেখা দেয়। চুল মানুষের সৌন্দর্যের অন্যতম একটি অংশ। অল্প বয়সে মাথায় টাক দেখা দেওয়া নিয়ে পুরুষদের চিন্তার শেষ নেই। এই টাক ঢাকার জন্য পুরুষরা কত কিছু করে থাকেন। এক গবেষণায় দেখা গেছে প্রায় ৪২% পুরুষরা ৩৫ বছর বয়সে মাথায় টাক দেখা দেয়। প্রতিটা পুরুষ জীবনের একটি নির্দিষ্ট সময়ে এক সাথে অনেক চুল হারিয়ে ফেলেন। বিভিন্ন কারণে পুরুষদের চুল পড়তে পারে। তার মধ্যে অন্যতম কিছু কারণ নিয়ে আজকের এই ফিচার।

১। পুরুষদের চুল পড়ার প্রধান কারণ হয় বংশগত বা জিনেটিক। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে পুরুষের শরীরে androgens নামক একটি হরমোন টাক পড়ার জন্য দায়ী। এই হরমোনটি চুলের বৃদ্ধির গতি বজায় রাখে।

২। ভিটামিনের অভাবে কারণে অনেক সময় চুল পড়তে পারে। তাই নিয়মিত ভিটামিন যুক্ত খাবার খাওয়া উচিত।

৩। স্ট্রেস অথবা মানসিক চাপ স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। স্ট্রেস শুধু স্বাস্থ্যের জন্য চুলের জন্যও ক্ষতিকর। দীর্ঘদিন অতিরিক্ত টেনশন চুল পড়ার আরেকটি কারণ।

৪। চুল পরিষ্কার করার জন্য শ্যাম্পু করার প্রয়োজন। কিন্তু প্রতিদিন চুলে শ্যাম্পু করা অনেক সময় চুলের ক্ষতির কারণ হয়ে থাকে। শ্যাম্পুতে থাকা ক্ষতিকর ক্যেমিক্যাল উপাদান চুল পড়া বৃদ্ধি করে।

৫। থাইরয়েডের সমস্যার কারণেও অতিরিক্ত চুল পড়তে পারে। এটি শরীরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থি। মেটাবলিজম এবং মস্তিষ্ক পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় হরমোন তৈরি করা থাইরয়েডের কাজ। Hypothyroidism কারণে চুল পড়া বৃদ্ধি পেতে পারে বহুগুণ। হঠাৎ করে চুল পড়া বৃদ্ধি পেলে থাইরয়েড পরীক্ষা করিয়ে নিন।

৬। বিভিন্ন ত্বক সমস্যা যেমনঃ লুপার ইরায়থমেটাস (মাথার ত্বকের রোগ) কারণেও মাথায় টাক দেখা দিতে পারে। এছাড়া ভাইরাসজনিত রোগ- হারপিস ইনফেকশনের জন্য অনেক সময় চুল পড়ে থাকে।