মেইন ম্যেনু

পুরুষের স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুলের জন্য

নিজের সৌন্দর্য চর্চায় ছেলেরা একটু বেশিই উদাসীন। কোনো রকম প্রতিরক্ষা ছাড়াই বাইরে বেরুলে রোদ, ময়লা আর ধুলাবালির আক্রমণে তাদেরই বেশি পড়তে হয়। অনেকে মনে করেন, ছেলেদের চুল ছোট তাই ঝামেলা কম। এই ভেবে নিজের চুলের যত্নও নেন না। কিন্তু বাস্তবে দেখা যায় ছেলেদের চুলে ধীরে ধীরে সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। খুশকি থেকে শুরু করে চুল পড়া সবকিছুর মূলেই রয়েছে অযত্ন, খাদ্যাভ্যাস আর জীবনযাপনের কিছু ধরন।

বিভিন্ন কেমিকেল-সমৃদ্ধ শ্যাম্পু ব্যবহার, অতিরিক্ত ঘাম, ময়লা, ধুলাবালিতে চুল রুক্ষ হয়ে যায়। এসব কারণে একটা পর্যায়ে চুল ভেঙে যায় এবং ধীরে ধীরে চুল পাতলা হয়ে যায়। তাই এক দিন পর একদিন শ্যাম্পু করার চেষ্টা করুন। তবে মনে রাখবেন বাইরে থেকে এসে চুলে তেল দিয়ে শ্যাম্পু করলে চুল পড়ার আশঙ্কা অনেক বেশি থাকে। তাই মাথায় ঘাম থাকা অবস্থায় তেল ব্যবহার করবেন না। ভালো ব্র্যান্ডের শ্যাম্পুতে ক্ষতিকর রাসায়নিক দ্রব্য কম থাকে, তাই এসব শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে মাইল্ড শ্যাম্পু ব্যবহার করা যেতে পারে।

বয়স বাড়লে ধীরে ধীরে চুল পড়তে থাকে। কিন্তু আজকাল খুব কম বয়সেই অনেকের চুল পড়ে যায়। একটা পর্যায়ে মাথায় টাকের সমস্যা দেখা দেয়। সাধারণত বাইরের রোদধুলোবালি আর আবহাওয়ার কারণে এমনটা হয়। আবার জীবনযাত্রায় অনিয়ম ও ধূমপানের কারণেও এমনটা হয়। তাই খাবার বাছাইয়ের ক্ষেত্রে সচেতন হতে হবে। তামাকজাতীয় দ্রব্য, মদ্যপান থেকে দূরে থাকুন।

ছেলেদের খুশকির সমস্যা একটু বেশিই হয়। এর প্রধান কারণ হলো সঠিক যত্ন না নেওয়া। অনেকের খাদ্যাভ্যাসও খুশকির কারণ হয়ে থাকে। তাই নিয়মিত ভালো করে শ্যাম্পু করুন। সপ্তাহে অন্তত একদিন চুলে লেবুর রস ব্যবহার করে শ্যাম্পু করলে খুশকি দূর হয়। এতে চুল ভালো থাকবে এবং খুশকির ব্যাকটেরিয়াও ধ্বংস হবে।