মেইন ম্যেনু

পুরুষ ধূমপায়ী ১০ কোটি ছাড়িয়েছে যেদেশে

ভারতে পুরুষ ধূমপায়ীর সংখ্যা ১০ কোটি ছাড়িয়েছে। প্রতি বছর দেশটিতে ১৭ লাখ পুরুষ ধূমপায়ীর সংখ্যা বাড়ছে। বিএমজে গ্লোবাল হেলথ সাময়িকীর এক প্রতিবেদনে গবেষকরা জানিয়েছেন, ৬ কোটি ১০ লাখ ভারতীয় সিগারেট এবং ৬ কোটি ৯০ লাখ বিড়িতে অভ্যস্ত। দেশটিতে শুধুমাত্র তামাকের কারণেই ১০ ভাগ মানুষের মৃত্যু হয়।

২০১০ সালে তামাকের কারণে ১০ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৭০ ভাগ মানুষের বয়স ৩০ থেকে ৬৯ বছর। ধূমপানের কারণে ৩০ ভাগ মানুষ ক্যান্সারে, ১৭ ভাগ হৃদরোগে এবং ৮০ ভাগ মানুষ যক্ষ্মাসহ অন্যান্য শ্বাসকষ্ট জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করে।

১৯৯৮ সালে দেশটিতে মোট ধূমপায়ীর সংখ্যা ছিল ৭ কোটি ৯০ লাখ। তখন দেশটি ধূমপায়ীদের সংখ্যা বিবেচনায় বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম দেশ হিসেবে স্থান করে নিয়েছেল। কিন্তু ২০১৫ সালে এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ কোটি ৮০ লাখ। আর এর ফলে দেশটি ধূমপানের ক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্থানে পৌঁছেছে।

তবে ধূমপানে নারীদের সংখ্যা বাড়েনি। ২০১৫ সালে ভারতে নারী ধূমপায়ীর সংখ্যা ছিল ১ কোটি ১০ লাখ বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। তবে চীনে প্রাপ্ত বয়স্ক ধূমপায়ীর সংখ্যা ৩০ কোটি। সেখানে প্রতি চারজনের মধ্যে একজনই ধূমপান করে থাকে।

তামাক নিয়ন্ত্রণের জন্য যেসব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তা খুব একটা কার্যকরী হচ্ছে না। এসব ব্যবস্থার মধ্যে রয়েছে প্রকাশ্যে ধূমপান না করা। এক্ষেত্রে মানুষের মধ্যে তেমন একটা সচেতনতা বাড়েনি। ফলে ধূমপায়ীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে।