মেইন ম্যেনু

পুরোনো সুসংবাদ নতুন করে পেল বাংলাদেশ

বাংলাদেশ সর্বশেষ চ্যাম্পিয়নস ট্রফি খেলেছিল কবে? স্মৃতিতে নিশ্চয় ধুলা পড়েছে। পড়ারই কথা। ২০০৬ সালের পর বাংলাদেশের আর খেলার সুযোগ হয়নি আইসিসির এ টুর্নামেন্টে। তবে ১১ বছর পর আবারও বাংলাদেশ অংশ নিতে যাচ্ছে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে। গত জুলাইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের পর ব্যাপারটি একপ্রকার নিশ্চিতই হয়ে গিয়েছিল। বাকি ছিল কেবল আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। সেটিও হয়ে গেল আজ।

২০১৭ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে অংশ নেওয়া আট দলের নাম নিশ্চিত করেছে আইসিসি। বেঁধে দেওয়া নির্ধারিত সময়ে ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ আট দল অংশ নেবে এ টুর্নামেন্ট। ফলে নিশ্চিত হয়েছে অস্ট্রেলিয়া, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, ইংল্যান্ড, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের খেলা। বাদ পড়েছে ২০০৪ চ্যাম্পিয়ন ট্রফি বিজয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বাংলাদেশের সুযোগ পাওয়া প্রসঙ্গে আইসিসির বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘২০১৫ বিশ্বকাপ থেকেই বাংলাদেশ দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করছে। পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে। এ কারণেই তারা আইসিসি ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে নয় থেকে সাতে চলে আসতে পেরেছে।’

২০১৭ সালের আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফি হবে ১৫ ম্যাচের। আটটি দল খেলবে দুই ভাগ হয়ে। শীর্ষ চারটি দল খেলবে সেমিফাইনালে। অবশ্য এখনো নির্ধারিত হয়নি টুর্নামেন্টের চূড়ান্ত সময়সূচি।

চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে বাংলাদেশ

সাল     আয়োজক    অর্জন
২০০০   কেনিয়া    বাছাই পর্ব
২০০২   শ্রীলঙ্কা     গ্রুপ পর্ব
২০০৪   ইংল্যান্ড   গ্রুপ পর্ব
২০০৬   ভারত      বাছাই পর্ব