মেইন ম্যেনু

পূজা দেখতে গিয়ে শিশু ধর্ষণের শিকার

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় পূজার ছুটিতে নানা বাড়ি বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকার হয়েছে তৃতীয় শ্রেণি পড়ুয়া এক শিশু। ধর্ষণের পর শিশুটিকে বাঁশঝাড়ে ফেলে পালিয়ে যায় ধর্ষক। বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। পরে উপজেলার পূর্ব বেজগ্রাম এলাকায় স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকা শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় থানায় একটি ধর্ষণের মামলা হয়েছে।
এলাকাবাসী ও পবিবার সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নানা বাড়ির এলাকায় পূজা মন্ডপ দেখতে যায় দুই শিশু। পূজা মন্ডপ দেখার সময় সাদা শার্ট ও কালো প্যান্ড পড়া এক যুবক তাদেরকে চকলেট কিনে দেয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়। পরে সামনে কিছুদূর গিয়ে এক শিশুর হাতে ৫ টাকা ধরিয়ে দিয়ে চকলেট আনতে পাঠায় অপরিচিত সেই যুবক। এই ফাঁকে সেখানে একা থাকা তৃতীয় শ্রেণির শিশুটির মুখে চেপে ধরে অদূরের বাঁশঝাড়ের ভিতরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় অজ্ঞাত ওই ধর্ষক। পরে রাতেই স্থানীয়রা শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাতীবান্ধা হাসপাতালে ভর্তি করে।
হাতীবান্ধা থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মুসা বলেন, ‘শিশুটির বাবা আজ শুক্রবার সকালে বাদি হয়ে হাতীবান্ধা থানায় অজ্ঞাত ১ জনের নামে মামলা দায়ের করেছেন।’
হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) জাকির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘পুলিশের পক্ষ থেকে ধর্ষককে খুঁজে বের করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’