মেইন ম্যেনু

পৃথিবীর বিখ্যাত চিড়িয়াখানাগুলো সম্পর্কে জানুন

বিশ্বের আশ্চর্যজনক প্রাণীদের দেখতে আমরা চিড়িয়াখানায় যাই। বিশ্বের সব প্রধান শহরগুলোতেই চিড়িয়াখানা আছে। কিন্তু একটি ভালো চিড়িয়াখানার বৈশিষ্ট্য কী? একটি উন্নত ও ভালো চিড়িয়াখানায় জীবজন্তুদের সেখানকার বাসিন্দা হিসেবে দেখা হয়, বন্দি হিসেবে নয়। তাদের জীবন যাপনের অনুকূল পরিবেশ দেয়া হয় ও যতটুকু সম্ভব প্রাকৃতিক পরিবেশে রাখার ব্যবস্থা করা হয়। যে সকল প্রাণীর বনে টিকে থাকার সমস্যা দেখা দেয় তাদের প্রজনন ও সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়। বৈচিত্রময় প্রাণীর সংরক্ষণ ও একটি আকর্ষণীয় চিড়িয়াখানার বৈশিষ্ট্য। পৃথিবীর বিখ্যাত কিছু চিড়িয়াখানা সম্পর্কে আজ জেনে নেই আসুন।

১। বার্লিন জু
জার্মানিতে অবস্থিত বার্লিন জু তে এবং এর সাথে যুক্ত অ্যাকুয়ারিয়ামে ১৭০০০ প্রাণী আছে। এই চিড়িয়াখানাটি তৈরি করা হয়েছিলো রাজা উইলিয়াম চতুর্থ প্রুসিয়ার ব্যক্তিগত পশু সংগ্রহের জন্য। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় বেশিরভাগ পশু ধ্বংস হয়ে যায়। বর্তমানে যেসব প্রাণী আছে তারা মূলত বেঁচে যাওয়া প্রাণীদেরই উত্তরজীবী। বার্লিনের আকর্ষণীয় স্থান এই চিড়িয়াখানা।

২। সিঙ্গাপুর জু
সিঙ্গাপুর জু বা মান্দাই জু সিঙ্গাপুরের বন কেন্দ্রিক অববাহিকায় নিরাপদ ভাবে তৈরি করা হয়েছে। যা বিশ্বের সবচেয়ে আকর্ষণীয় চিড়িয়াখানাগুলোর একটি। এটি জীবজন্তুর একটি প্রকৃতিবাদী আবাস। এদের এই আবাসটিকে বিভিন্ন ধরণের বাঁধা, পরিখা ও গ্লাস দিয়ে ঘিরে রাখা হয় যার মাধ্যমে দর্শনার্থীরা নিরাপদে এদের দেখতে পারে।

৩। বেইজিং জু
বেইজিং জু চীনের একটি জুলজিক্যাল পার্ক। ২২০ একর জায়গা নিয়ে এটি অবস্থিত এবং এর ১৪ একর জায়গায় লেক ও পুকুর আছে। এই চিড়িয়াখানায় ও এর অ্যাকুরিয়ামে ১৪,৫০০ প্রাণী আছে যার মধ্যে ৪৫০ প্রজাতির স্থলজ প্রানী এবং ৫০০ প্রজাতির জলজ প্রাণী আছে। প্রতিবছর ৬ কোটি মানুষ এই চিড়িয়াখানার বিরল প্রজাতি ও বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির জীবজন্তু পরিদর্শনে যায়।

৪। ন্যাশনাল জুলজিক্যাল গার্ডেনস অফ সাউথ আফ্রিকা
সাউথ আফ্রিকার পিটুরিয়াতে এই ন্যাশনাল জুলজিক্যাল গার্ডেনস অফ সাউথ আফ্রিকা অবস্থিত। এটি সবচেয়ে মনোহর চিড়িয়াখানাগুলোর একটি। এই চিড়িয়াখানার অর্ধেক অংশ সমতলে এবং বাকী অর্ধেক অংশ পাহাড়ের ঢালে অবস্থিত। চিড়িয়াখানার মধ্যদিয়ে প্রবাহিত হয়েছে অ্যাপিস নদী। নদীর উপরে ২ টি সেতু আছে ও ১টি কেবলওয়ে আছে।

৫। টরোন্টো জু
কানাডার অন্টারিওতে এই টরোন্টো জু অবস্থিত। এই চিরিয়াখানাটি ৭১০ একর জায়গা নিয়ে গঠিত এবং ৪৯১ প্রজাতির প্রাণী আছে এখানে। এই চিড়িয়াখানার একটি জনপ্রিয় বৈশিস্ট্য হচ্ছে এখানে সাতটি জুজিওগ্রাফিক অঞ্চলের প্রানী আছে এখানে যেমন- ইন্দু-মালয়া, আফ্রিকা, আমেরিকা, তুন্দ্রা ট্রেক, অস্ট্রেলেশিয়া, ইউরেশিয়া এবং কানাডা।

৬। মোনারটো জুলজিক্যাল পার্ক
সাউথ অস্ট্রেলিয়ায় মোনারটো জুলজিক্যাল পার্ক অবস্থিত। যা জীবজন্তুর খোলা অভয়ারণ্য। এই চিরিয়াখানাটি ২৪৭০ একর জায়গা নিয়ে গঠিত। জায়গার দিক দিয়ে এটি পৃথিবীর সবচেয়ে বড় চিড়িয়াখানা। পর্যটকদের আকর্ষণ করার মত অনেক বৈশিষ্ট্য আছে এই চিড়িয়াখানার যেমন- চিতার আবাস, সাদা গন্ডারের আবাস, জিরাফের পাল ইত্যাদি।

৭। সান দিয়াগো জু
আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়ার বাল্বো পার্কে সান দিয়াগো জু টি অবস্থিত। এতে জীবজন্তুর জন্য প্রাকৃতিক আবাস তৈরি করা হয়েছে। এখানে ৬৫০ প্রজাতি ও উপপ্রজাতির ৩৭০০ জীবজন্তু আছে।
বিখ্যাত আরো কিছু চিড়িয়াখানা হচ্ছে – যুক্তরাজ্যের লন্ডন জু, নিউজিল্যান্ডের ওয়েলিংটন জু, অষ্ট্রিয়ার ভিয়েনার টাইয়ার গারটেন স্কনব্রান, ভারতের অ্যারিগনার অ্যান্না জুলজিক্যাল পার্ক ইত্যাদি।