মেইন ম্যেনু

পে স্কেলে আবারও পরিবর্তন আসছে

সম্প্রতি কার্যকর হওয়া নতুন অষ্টম পে স্কেলে আবারও পরিবর্তন আনা হচ্ছে। আগামী মার্চের প্রথম সপ্তাহেই এ পরিবর্তন আনা হবে। এর ফলে গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত যাদের ইনক্রিমেন্ট (বার্ষিক বেতন বৃদ্ধি) পাওয়ার কথা রয়েছে। তাদের সেই ইনক্রিমেন্ট বেতনের সঙ্গে নতুন পে স্কেল যুক্ত হবে।

অষ্টম পে স্কেলে বেতন কাঠামোর গেজেটে সরকারি চাকুরিজীবীদের ইনক্রিমেন্ট বাতিল করার কথা বলা হলেও এখন নতুন করে আদেশ জারি করে তাদের ইনক্রিমেন্ট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সরকার। আর নতুন কাঠামো অনুযায়ী, আগামী অর্থবছর থেকে ইনক্রিমেন্ট যাঁর যেদিনই পাওয়ার কথা হোক না কেন, সবাই একসঙ্গে ১ জুলাইয়ে পাবেন। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে চাকরির বেতনে সুবিধা পাবেন প্রায় আট লক্ষ সরকারি চাকরিজীবী। এছাড়াও একই পদে পূর্বে চাকরিরতদের চেয়ে নতুনরা জুনিয়র থাকবে না।

অর্থ মন্ত্রণালয় ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তারা জানান, গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত যাদের ইনক্রিমেন্ট পাওয়ার কথা, সরকার তাদের ইনক্রিমেন্ট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত একটি সারসংক্ষেপ চূড়ান্ত করে গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনের জন্য পাঠিয়েছে অর্থ বিভাগ। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পাওয়ার পরই এ বিষয়ে গেজেট জারি করবে অর্থ বিভাগ।

অর্থ বিভাগের সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা জানান, আগের নিয়ম অনুযায়ী, সারা বছর ধরে প্রতিদিনই বিপুলসংখ্যক কর্মকর্তা-কর্মচারী ইনক্রিমেন্ট পেতেন। এতে সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন ব্যয় নিয়ে সরকারের হিসাব রাখা দুরূহ হয়ে পড়ে। এই বিবেচনায় ড. ফরাসউদ্দিনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় বেতন ও চাকরি কমিশনের সুপারিশ ছিল প্রতিবছর ১ জুলাই সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট দেওয়ার। সচিব কমিটি ও মন্ত্রিসভাও এই প্রস্তাব অনুমোদন করে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে নতুন বেতন কাঠামোতে এই ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, নতুন বেতন কাঠামোয় গ্রেড আগের মত ২০টিই থাকবে। অষ্টম বেতন কাঠামোর ফলে প্রায় ১৪ লাখ কর্মকর্তা-কর্মচারী প্রায় দ্বিগুণ বেতন পাবেন।

নতুন পে-স্কেল প্রথম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা বেতন পাবেন ৭৮ হাজার টাকা। ২য় গ্রেডে যাড়া থাকবেন তারা পাবেন ৬৬ হাজার টাকা। ৩য় গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৫৬ হাজার ৫০০ টাকা।, ৪র্থ গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৫০ হাজার টাকা। ৫ম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৪৩ হাজার টাকা। ৬ষ্ঠ গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৩৫ হাজার ৫০০ টাকা পাবেন। ৭ম গ্রেড যারা থাকবেন তারা পাবেন ২৯ হাজার টাকা। ৮ম গ্রেড যারা থাকবেন তারা পাবেন ২৩ হাজার টাকা। ৯ম গ্রেড যারা থাকবেন তারা পাবেন ২২ হাজার টাকা। ১০ম গ্রেড যারা থাকবেন তারা পাবেন ১৬ হাজার টাকা।

১১তম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ১২ হাজার ৫০০ টাকা। ১২তম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ১১ হাজার ৩০০ টাকা । ১৩তম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ১১ হাজার টাকা । ১৪তম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ১০ হাজার ২০০ টাকা ।১৫ তম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৯হাজার ৭০০ টাকা । ১৬তম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৯ হাজার ৩০০ টাকা । ১৭তম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৯ হাজার টাকা । ১৮তম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৮ হাজার ৮০০ টাকা ।১৯তম গ্রেডে যারা থাকবেন তারা পাবেন ৮ হাজার ৫০০ টাকা । এবং ২০তম বা সর্বনিম্ন গ্রেডে যারা থাকবেন তারা বেতন পাবেন ৮ হাজার ২৫০ টাকা ।

নতুন কাঠামোয় গ্রেড চালু হওয়ায় আর থাকছে না প্রথম শ্রেণী, দ্বিতীয় শ্রেণী, তৃতীয় শ্রেণী প্রভৃতি পদগুলো। কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এখন থেকে নতুন গ্রেডেই পরিচিতি পাবেন।

নতুন বেতন কাঠামোয় ওপরের দিকের গ্রেডগুলোর বেতন বৃদ্ধির হার কম তবে নিচের স্তরে বৃদ্ধির হার বেশি। এই নতুন বেতন কাঠামোয় নির্ধারিত ইনক্রিমেন্ট থাকছে না । ‘নতুন বেতন কাঠামোয় বৃদ্ধির হার বলা হয়েছে ২০ নম্বর গ্রেড থেকে ৬ নম্বর গ্রেড পর্যন্ত ৫ শতাংশ , ৫ নম্বর গ্রেডে ৪ দশমিক ৫ শতাংশ, ৩ এবং ৪ নম্বর গ্রেডে ৪ শতাংশ, ২ নম্বর গ্রেডে ৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ হারে বেতন বৃদ্ধি পাবে। তবে ১ নম্বর গ্রেডে কোনো ইনক্রিমেন্ট থাকবে না ।

নতুন বেতন কাঠামো অনুযায়ী এখন থেকে উৎসব ভাতা হিসেবে নববর্ষ ভাতাও পাবেন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। মূল বেতনের ২০ শতাংশ এ ভাতা দেয়া হবে। আগে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বছরে দুটো ধর্মীয় উৎসব ভাতা পেতেন।

নতুন বেতন স্কেল কার্যকর করতে এ বছরই ১৫ হাজার ৯শ ৪ কোটি ২৪ লাখ টাকা অতিরিক্ত খরচ হবে। এ বছর শুধু বর্ধিত মূল বেতন দেয়া হবে। আগামী বছর অর্থ্যাৎ ২০১৬ জুলাই থেকে বেতন এবং ভাতা উভয়ই মিলিয়ে এখরচ দাঁড়াবে অতিরিক্ত ২৩ হাজার ৮২৮ কোটি ৫৭ লাখ টাকায়।

এছাড়াও নির্ধারিত বেতন থাকবে- সচিব-৭৮ হাজার, মেজর জেনারেল-৭৮ হাজার, সিনিয়র সচিব-৮২ হাজার, লে. জেনারেল – ৮২ হাজার, মুখ্য সচিব, মন্ত্রিপরিষদ সচিব-৮৬ হাজার এবং তিনবাহিনী প্রধান- ৮৬ হাজার টাকা পাবেন।