মেইন ম্যেনু

‘পোস্টার গার্ল’কে পিটিয়ে হত্যা আইএসের

সিরিয়ায় আইএসের আস্তানা থেকে পালানোর চেষ্টা করায় এক তরুণীকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার ব্রিটিশ দৈনিক ইন্ডিপেন্ডেন্ট তাদের অনলাইন সংস্করণে এ তথ্য জানিয়েছে।

আইএসে যোগ দিতে গত বছর ভিয়েনা থেকে বান্ধবী ১৫ বছরের সাবিনা সেলিমোভিককে সঙ্গে নিয়ে ১৭ বছরের সামারা কেসিনোভিক সিরিয়ায় পালিয়ে যান। সেখানে যাওয়ার কয়েক দিন পরই আইএসের ‘পোস্টার গার্ল’ বনে যান সাবিনা ও সামারা। অন্য নারীদের আইএসে যোগদানে অনুপ্রাণিত করতে কালাশনিকভ হাতে তাদের দুজনের বিভিন্ন ছবি ফেসবুক ও টুইটারে পোস্ট করত আইএস।

গত অক্টোবরে আইএসের সঙ্গে কাজ করে আসা এক নারী জানান, আইএসের হত্যাযজ্ঞ দেখে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন সামারা। তিনি দেশে ফিরতে চান। আইএসের শক্ত ঘাঁটি রাকা থেকে পালানোর চেষ্টার সময় ধরা পড়েন সামারা। পরে তাকে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে আইএস। এ প্রতিবেদনের বিষয়ে অস্ট্রিয়া সরকারের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

জাতিসংঘের জঙ্গিবাদবিরোধী বিশেষজ্ঞ ডেভিড স্কারিয়া বলেন, ‘সম্প্রতি আমরা খবর পেয়েছি, অস্ট্রিয়া থেকে বসনীয় বংশোদ্ভূত ১৫ বছরের যে দুই কিশোরী পালিয়ে গিয়েছিল, তাদের একজন সিরিয়ায় যুদ্ধে নিহত হয়েছে এবং অপরজনের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।’