মেইন ম্যেনু

‘প্যান্ট খুলে বাইরে বের হবার দিবস’ (ভিডিও)

হাজার কোটি মানুষের বিচিত্র এই পৃথিবীতে যে কত আয়োজন ! বিচিত্র সব জীবন-যাপন আর নিয়ম রীতি মাঝে মধ্যেই হোচট খাইয়ে দেয় অন্যদেরও । কিছু মানুষ অনেকটা খেয়াল খুশির বশেই অদ্ভুত সব নিয়ম বানিয়ে ফেলে তাদের প্রাত্যাহিক জীবন-যাপনে। তারপর দিন বেয়ে সেটাই একসময় তাদের উত্তরসূরিদের মধ্যে পালনীয় হয়ে উঠে। আবার সমাজ,ধর্ম সংস্কার ভেদেও দেখা যায় অদ্ভুত সব রীতি-নীতি ।

এই গ্লোবাইজেশানের যুগে কত অদ্ভুত রীতির কথাই না আমরা শুনেছি, দেখেছি । ইন্টারনেট আর স্যাটেলাইটের সুবাদে পৃথিবী এখন হাতের মুঠোতে তার সুবাদেই কখনো কখনো দারুণ অবাকও হয়েছি আমরা । তবে আজ যে অদ্ভুত দিবস পালনের কথা জানাতে যাচ্ছি তাতে করে শুধু চোখ ছানাবোড়া নয় আস্তো কপালেই যে উঠবে তাতে কোন সন্দেহ নেই ।

আপনি শুনলে হোঁচট খাবেন, কারন ১১ই জানুয়ারি ছিলো ‘প্যান্ট খুলে বাইরে বের হবার দিবস’!

জি, জনাব অবাক হবেননা, একটু খোঁজ নিয়ে দেখুন, জানতে পারবেন, পৃথিবী জুড়ে পাক্কা ৬০টি দেশে প্যান্ট খুলে মেট্রোয় যাতায়াত করেছেন লাখ লাখ মানুষ। তাও আবার নারী, পুরুষ- নির্বিশেষে!

দিনটাকে আদর করে পশ্চিম পৃথিবী বলে, নো প্যান্টস সাবওয়ে রাইড! মানে, প্যান্ট না পড়েই মেট্রোয় যাতায়াত করা!

ভাবছেন নিশ্চয়ই, এ কী রকম বিচিত্র আমোদ?

তাদের এমন বিচিত্র দিবস পালনের যুক্তিটা তারা দাড় করিয়েছেন এভাবে ,’ আসলে, মানুষের জীবনে অনাবিল আনন্দের সুযোগ তো খুব কম থাকে। স্বাধীন ভাবে, মর্জিমাফিক সময় কাটাবার সুযোগই বা কতটুকু মেলে?

সেই জন্যই ২০০২ সালে মানুষকে একটু আনন্দ দেওয়ার জন্য ইমপ্রভ এভরিহোয়্যার বলে এক দলের সাত জন সদস্য প্যান্ট ছাড়াই মেট্রোয় ওঠে। তুখোড় ঠান্ডার মরসুমে জ্যাকেট, টুপি, মাফলার, সোয়েটার, মোজা, জুতো- সবই পড়ে মেট্রোয় উঠেছিল তারা। ছিল না শুধু প্যান্টটা! তাড়াহুড়োয় যেন বা ভুল হয়ে গিয়েছে!

সেই থেকে শুরু। মানুষ আনন্দ পেল। প্রাণ খুলে হাসল। এবং, ২০০৬ সালের মধ্যে এই মিশনে যোগ দিল সব মিলিয়ে ১৫০ জন। এখন ছবিটা খুব অন্য রকম। জার্মানি, চেক প্রজাতন্ত্র, ব্রিটেন-সহ পৃথিবীর ৬০টি দেশে প্রতি বছর আজকের দিনে সব মিলিয়ে প্যান্ট ছাড়া রাস্তায় নামাটাই এখন রেওয়াজ।

অবশ্য, বেশ কিছু দেশ ব্যাপারটাকে অশ্লীল তকমাও দিয়েছে। যেমন, ল্যাটভিয়া! ও দেশে প্যান্ট ছাড়া মেট্রোয় ওঠার চেষ্টা করলেই পুলিশ ধরবে!

তাতে যদিও বাকি পৃথিবীর কিছু যায়-আসে না! নিজের মতো করে বাঁচতে কে না চায়! হোক না সে একদিনের জন্য!

ভিডিওটি দেখুন