মেইন ম্যেনু

প্যারিস হামলার প্রেক্ষাপটে শিখ যুবককে নিয়ে টানাটানি

ভারতীয় বংশোদ্ভুত কানাডায় বসবাসরত বীরেন্দর জুব্বল নামের এক শিখ যুবককে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও সংবাদমাধ্যমে টানাটানি শুরু হয়েছে। প্যারিসে হামলাকারীদের একজন হিসেবে বীরেন্দরের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কে বা কারা ছড়িয়ে দিয়েছে। গুজবে কান দিয়ে ওই ছবি নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

সোমবার ভারতের সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে এ ঘটনার বিস্তারিত প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত শনিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ভেসে উঠে কানাডার ওই শিখ যুবক বীরেন্দরের একটি ছবি। ছবিতে দেখা যায়, ‘সুইসাইড ভেস্ট’ এবং পরে কোরআন হাতে দাঁড়িয়ে আছে বীরেন্দর। আর এই ছবিকে কেন্দ্র করে বিতর্কের ঝড় ওঠে সোশ্যাল মিডিয়ায়। শুধুমাত্র সোশ্যাল মিডিয়াতেই নয়, ছবি ছাপা হয় স্পেনের সর্বাধিক প্রচারিত একটি সংবাদপত্রেও। পরে তা ইতালীয় সংবাদমাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়ে। দ্রুত সেই ছবি শেয়ার হতে থাকে। ফেসবুক-টুইটারে তা ছড়িয়ে পড়তেই নিমিষে প্যারিস হামলাকারী হিসাবে চিহ্নিত হয়ে যান বীরেন্দর। এছাড়া ইসলামি স্টেটপন্থী ‘খিলাফা নিউজ’ সেই ছবি শেয়ার করে শিরোনামও করে দেয়, ‘ইসলামে ধর্মান্তরিত শিখ।’

মূলত: গত আগস্টে পাগড়ি পরে বীরেন্দর একটি আইপ্যাড নিয়ে ছবি তুলেছিলেন। কিন্তু, ফটোশপের কল্যাণে সোশ্যাল মিডিয়ায় তা-ই হয়ে যায় ‘সুইসাইড ভেস্ট’ এবং পরে কোরআন হাতে ধরা ব্যক্তি।

এ বিষয়ে শনিবারই টুইটারে বীরেন্দর বলেন, ‘মানুষ আমার একটি সেলফি নিয়ে ফটোশপে কারসাজি করছে, এডিট করছে, যেন আমিই প্যারিসে হামলাকারীদের একজন।’

বীরেন্দর জানিয়েছেন, এ সব দেখে ভারত থেকে এক আত্মীয়ও তাকে ফোন করেছিলেন। অবশেষে সাংবাদিকদের মাধ্যমে সত্য সামনে আনেন তিনি।