মেইন ম্যেনু

প্রকাশ্যে গাঁজা খাওয়া যাবে মেক্সিকোতে!

মেক্সিকোর আদালত গত বুধবার প্রকাশ্যে গাঁজা খাওয়া একরকম বৈধ ঘোষণা করেছেন। আদালতের রায়ে চার জনের একটি ছোট দলকে গাঁজা গাছ চাষ এবং বিনোদনের জন্য সেবন করার অনুমতি দেয়া হয়। এতদিন পর্যন্ত গাঁজার আইনানুগ ব্যবহার ছিল শুধু চিকিৎসার ক্ষেত্রে, ব্যক্তিগতভাবে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া গাঁজা খাওয়া ছিল অপরাধ। এখন আদালতের রায়ে সবার জন্য গাঁজা সেবনের বৈধতা পাওয়ার দুয়ার খুলে গেল।

মেক্সিকোর এই নতুন আইন অনুসারে এই দলের চারজন প্রতিনিধি বাড়িতে গাঁজা চাষ, পরিবহন এবং সেবন করতে পারবে। শুধু তাই না, স্বাস্থ্য বিধির যে পাঁচটি নিয়মের বলে পূর্বে গাঁজা নিষিদ্ধ করা হয়েছিল, এখনকার আইন সেগুলো তুলে দিয়েছে। তবে শুধুই তাদের জন্য এই আইন প্রযোজ্য।

চার জনের যে দলটি এই অনুমতি পেয়েছে তারা (এসএমএআরটি) সংক্ষেপে ‘স্মার্ট’ বলে পরিচিত। আদালতে দাঁড়িয়ে দলটি বলেছে, ড্রাগ নিয়ে বর্তমানে যে নিয়ম আছে তা অকার্যকর এবং দমনমূলক। এই নীতি মানুষের ব্যক্তিগত জীবনে বাধা হয়ে দাঁড়ায়।

দলটি আরও বলেছে, এরকম কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি যে গাঁজাকে বৈধ করলে এটা সেবনের মাত্রা এবং সামাজিক গোলযোগ আরও বেড়ে যাবে। হয়তবা এর উল্টোটাও হতে পারে।

আদালতের আদেশ যে চার জনের জন্য প্রযোজ্য তারা হলেন- হোসেফিনা রিকানো, আরমানদো সাংক্রুস, হোশে পাবলো সিরালত এবং ফ্রান্সিসকো তোরেস। তাদের মতে, গাঁজা খাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা ব্যক্তিগত স্বাধীনতা হরণের নামান্তর।

অনেক বিশ্লেষকের মতে, আদালতের এই সিদ্ধান্ত যুগান্তকারী। আবার আশঙ্কা করছেন, এটা নেশার জগতকে আরও সহজলভ্য করবে।