মেইন ম্যেনু

প্রতারণা করে বৃদ্ধার ‘নয় লাখ’ টাকা হাতিয়ে নেয় মেয়ে-জামাই!

স্বামীর মৃত্যুর পর থেকেই সংসার চালাতে গিয়ে বিক্রি করতে হয়েছে একের পর এক জমি। বাইশ বিঘা জমি ছিল। চার মেয়ে দুই ছেলের ভবিষ্যতের কথা ভেবে, জমি বিক্রি করে সংসার টেনেছেন জলপাইগুড়ির পিলখানা কলোনির রংমালা সরকার। এখন তিনি বৃদ্ধা। এখন কে তাঁকে দেখবে? সেই কথা ভেবে এবার, বাকি সাড়ে চার বিঘা জমিও বিক্রি করায় ছেলে মেয়েরা।

জমি বিক্রি বাবদ মেলে সাড়ে ছয় লাখ টাকা। বৃদ্ধার হতে ছিল আরও তিন লাখ। মোট নয় লাখ টাকা ব্যাঙ্কে জমা হয়। এরপরেই শুরু আসল গল্প। পোস্ট অফিস সুদ বেশি এই কথা বলে বৃদ্ধাকে দিয়ে ব্যাঙ্কের টাকা তুলিয়ে নেয় বড় মেয়ে ও জামাই। অভিযোগ সেই টাকা আর পোস্ট অফিসে জমা পড়েনি।

সেই নয় লক্ষ টাকা ফেরত চাইতে গিয়েই বিপদে পড়েছেন বৃদ্ধা রংমালা। অভিযোগ, টাকা চাওয়ায় বৃদ্ধাকে লক্ষ করে গরম পানি ছোড়া হয়, চুলের মুঠি ধরে কিল ঘুষি মারা হয়। মেয়ে-জামাইয়ের হাতেই রক্তাক্ত হন পঁচাত্তর বছরের এই বৃদ্ধা।

বৃদ্ধার ছয় ছেলে, মেয়েই এখন প্রতিষ্ঠিত, স্বচ্ছল। তবু পঁচাত্তরের বৃদ্ধাকে হিসেব রাখতে হয় ব্যাঙ্ক-পোস্ট অফিসের। হিসেব মেলাতে গিয়ে পুড়তে হয় গরম পানিতে। রক্তাক্ত অবস্থায় তিনি ভর্তি জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে। ছেলে-মেয়েরা বলছেন, সবই তো ঠিক ছিল। যত গোলমাল করেছে শুধু বড় মেয়ে ও জামাই।-জিনিউজ