মেইন ম্যেনু

প্রতিদিন কেন খাবেন ডিম?

ডিমের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে আমাদের কম বেশি সবার জানা। প্রতিদিনকার নাস্তায় অনেকেই ডিম খেতে পছন্দ করেন। কিন্তু প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর? ডিমে কোলেস্টেরল থাকার কারণে অনেকেই বিশেষ করে বয়স্ক ব্যক্তিরা যাদের ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, কোলেস্টেরল সমস্যা আছে তারা মনে করেন প্রতিদিন ডিম খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভাল নয়। একটি ডিমে ৮৫% ক্যালরি এবং ৭% গ্রাম প্রোটিন থাকে। যার মধ্যে কুসুমে ৯৫% ক্যালসিয়াম এবং আয়রন, সাদা অংশে বাকী ক্যালসিয়াম এবং আয়রন থাকে।আসুন, আজ জেনে নিই প্রতিদিন ডিম খেলে কী কী উপকারিতা পাচ্ছেন আপনি।

১। ভিটামিনের চাহিদা পূরণ করে

একটি ছোট ডিমে আছে ভিটামিন বি২, ভিটামিন বি১২, ভিটামিন এ, ভিটামিন ই। যা দেহে শক্তি যোগায়, লোহিত রক্ত কণিকা উৎপন্ন করে, দৃষ্টিশক্তি ভাল রেখে ক্যান্সার প্রতিরোধ করে থাকে।

২। হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাস করে

দুই রকমের কোলেস্টেরল আছে ভাল কোলেস্টেরল (এইচডিএল), খারাপ কোলেস্টেরল( এলডিএল)। খারাপ কোলেস্টেরল ধমণী ব্লক করে হৃদ্ররোগ সৃষ্টি করে থাকে। আর ভাল কোলেস্টেরল ধমনী থেকে চর্বি অপসারণ করে হার্ট সুস্থ রাখে। ডিম বড় এলডিএলকে ছোট এলডিএলে রূপান্তরিত করে কার্ডিওভাসকুলার রোগের ঝুঁকি কমিয়ে দেয়।

৩। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি

রোগ প্রতিরোধ বৃদ্ধিতে ডিম বেশ ভাল কাজ করে। একটি বড় ডিমে শতকরা ২২ ভাগ সেলেনিয়াম আছে যা প্রতিদিনকার চাহিদা পূরণ করা থাকে। এর পুষ্টি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে থাইরয়েড হরমোন নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। প্রতিদিনের ডায়েটে একটি বা দুটি ডিম রাখুন আর ইনফেকশন, ভাইরাস থেকে দূরে থাকুন।

৪। ত্বক এবং চুলে পুষ্টি যোগায়

স্বাস্থ্যকর চুল, ত্বক, চোখ এবং লিভারের জন্য ভিটামিন বি কমপ্লেক্স খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি আমাদের নার্ভ সিস্টেমকে সচল রাখতে সাহায্য করে।

৫। ওজন হ্রাস করতে সাহায্য করে

আপনি কি জানেন ডিম ওজন হ্রাস করতে সাহায্য করে? অনেকে ধারণা ডিমের ফ্যাট শরীরের ওজন বৃদ্ধি করে দেয়। Rochester Center for Obesity Research গবেষণায় দেখেছেন প্রতিদিন সকালের নাস্তায় একটি ডিম সারাদিনে ক্ষুধার পরিমাণ কমিয়ে দেয়, বেশি খেয়ে ফেলার প্রবণতা কমায়। রোজ ডিম খেয়ে তিন পাউন্ড বা এর বেশি ওজন এক মাসে আপনি কমিয়ে ফেলতে পারেন।

৬। স্তন ক্যানসার প্রতিরোধে

Harvard University এর ২০০৩ সালের এক সমীক্ষায় দেখা গেছে প্রতিদিন একটি ডিম তরুণীদের স্তন ক্যানসার হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করে। আরেক সমীক্ষায় দেখা গেছে যেসব মহিলারা প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে ৬টি ডিম খান তাদের শতকরা ৪৪ ভাগ ব্রেস্ট ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা কমিয়ে দেয় যারা দুই বা এরচেয়ে কম ডিম খেয়ে থাকেন।

৭। স্ট্রেস হ্রাস করতে

আপনার যদি অ্যামিনো ৯ অ্যাসিডের ঘাটতি থাকে তবে তা আপনার মানসিক স্বাস্থ্যের প্রভাব ফেলবে। ২০০৪ সালে এক জার্নালে দেখা গিয়েছে যে খাবারের সাথে স্ট্রেস, দুশ্চিন্তার সম্পর্ক আছে। কিছু খাবার আছে যা আপনার স্ট্রেস কমিয়ে দেয়। ডিম তাদের মধ্যে অন্যতম।

সহজলভ্য খাবার ডিম, তাই প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় একে রাখতে ভুলবেন না যেন।