মেইন ম্যেনু

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে খালেদা-তারেক

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিএনপির চেয়ারপারসন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমান। কারণ দলের ষষ্ঠ কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে এই দুই শীর্ষ পদে নির্বাচনের জন্য মনোনয়পত্র আহ্বান করা হলেও নির্ধারিত দিনে এই দুজন ছাড়া অন্য কেউ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেনি।

আগামী ১৯ মার্চ দলের কাউন্সিলকে সামনে রেখে দলের শীর্ষ এই দুই পদে নির্বাচনের জন্য ২৯ ফেব্রুয়ারি তফসিল ঘোষণা করে দলীয় নির্বাচন কমিশন। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী বুধবার ছিল মনোনয়নপত্র সংগ্রহের দিন।

ঘোষণা অনুযায়ী সকাল থেকে বিএনপির নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের অস্থায়ী নির্বাচনী অফিসে মনোনয়পত্র দেয়া হয়। বেলা ১১টার দিকে চেয়ারপারসন পদে বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

দীর্ঘ সময় অপেক্ষার পর বেলা সাড়ে তিনটার দিকে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদে তারেক রহমানের পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তার নির্বাচনী এজেন্ট ও দলটির আরেক যুগ্ম মহাসচিব মো. শাহজাহান। এই দুই পদে আর কেউ মনোনয়নপত্র নেননি।

মনোনয়নপত্র বিতরণ শেষে বিকাল চারটার দিকে সাংবাদিক সম্মেলনে রিটার্নিং কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম খান জানান, ‘অন্য কেউ মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে কিনা সেজন্য আমরা অপেক্ষা করেছিলাম। কিন্তু দুই পদে দুজন ছাড়া অন্য কেউ মনোনয়নপত্র নেননি। সে কারণে দুই পদে এখন একজন করে প্রার্থী পাওয়া গেছে।’

তিনি আরও জানান, ‘তথ্য যাচাই বাছাই শেষে আমরা নির্বাচন কমিশনকে রিপোর্ট পেশ করবো। পরে বিধি অনুযায়ী তারা নির্বাচনের পরবর্তী প্রক্রিয়া শেষ করবেন।’ নির্বাচনী কার্যক্রম স্বচ্ছতার সঙ্গে করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

ঘোষণা অনুযায়ী ৪ মার্চ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেয়া যাবে। ৫ মার্চ বাছাই ও ৬ মার্চ পর্যন্ত মনেনায়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে।