মেইন ম্যেনু

প্রতিশোধ দেখছেন না মাশরাফি

অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে ভারতের বিপক্ষে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে আম্পায়ারদের সেই ‘বির্তকিত’ সিদ্ধান্তগুলোর কারণে বাংলাদেশের ভক্ত-সমর্থকদের মনের ক্ষত এখনও দগদগে। মিরপুরের শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার মহেন্দ্র সিং ধোনির বিপক্ষে যখন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা টস করতে নামেন, তখন থেকেই স্বাগতিক ভক্ত-সমর্থকরা প্রতিশোধের নেশায় বুদ হয়ে খেলা দেখা শুরু করেন। শেষ পর্যন্ত তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে ধোনির দলকে ৭৯ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। আর তাতে মেলবোর্নে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের সেই ম্যাচের মধুর প্রতিশোধ হিসেবে দেখছেন টাইগার-সমর্থকরা। তবে এটা মানতে নারাজ টাইগার ওয়ানডে দলপতি মাশরাফি। তার মতে, খেলার ভিতর প্রতিশোধের বিষয়টি কোনোভাবেই থাকা উচিৎ নয়। বৃহস্পতিবার ম্যাচ শেষে স্বাগতিক অধিনায়ক মাশরাফি বলেন, ‘আমি মনে করি, খেলার ভেতরে প্রতিশোধ থাকা ঠিক নয়। আমরা সবাই মানুষ। আমাদের পরিবার আছে। সবাই আমরা ক্রিকেট খেলি। এখানে প্রতিশোধের প্রশ্ন আসেই না।’

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনালে ভারতের কাছে ১০৯ রানে হেরে বিদায় নিয়েছিল মাশরাফি বাহিনী। তারপর বৃহস্পতিবার মিরপুরে বাংলাদেশ-ভারত প্রথমবারের মতো ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়। প্রথম ওয়ানডেতে অভিষিক্ত মুস্তাফিজুরের পেস বোলিংয়ে বিধ্বস্ত ভারত। ফলে বাংলাদেশি সমর্থকরা এখন অনেক খুশি। তবে মেলবোর্নের আগের ম্যাচটির সঙ্গে মিরপুরের ম্যাচটিকে মেলাতে চান না মাশরাফি। এ প্রসঙ্গে স্বাগতিক অধিনায়ক বলেন, ‘আমি যেটা মনে করি, আমরা মাঠে অবশ্যই জেতার জন্য লড়াই করি। এতটুকুর ভেতরই থাকতে চাই। যখন মাঠে ম্যাচ খেলবেন তখন অনেক কিছু হতে পারে। আমাদের সবাই কিন্তু ম্যাচ শেষে হোটেলে একসঙ্গেই যাই; হোটেলে গিয়ে একসঙ্গে আড্ডা দেই।’ প্রথম ওয়ানডেতে দুর্দান্ত বল করতে থাকা মুস্তাফিজুরকে ভারতীয় অধিনায়ক ধোনি রান নিতে গিয়ে সজোরে ধাক্কা দেন। যে কারণে ঐ সময় কিছুটা আঘাত-প্রাপ্ত হয়ে মাঠ ছাড়েন প্রথম ম্যাচের নায়ক। তবে ধোনির এই বিতর্কিত ঘটনাটিকে কৌশলে এড়িয়ে যান মাশরাফি। এ বিষয়ে টাইগার অধিনায়ক বলেন, ‘মাঠে ম্যাচ চলাকালে অনেক কিছুই হয়। সেগুলো নিয়ে আসলে এভাবে ভাবা ঠিক নয়। আজকে (বৃহস্পতিবার) ওর (মুস্তাফিজ) সঙ্গে কিছুই হয়নি। ধোনির সঙ্গে মুস্তাফিজের সাইড ক্রস হয়েছে। মুস্তাফিজ হয়ত রং সাইডে ছিল। আসলে এগুলো নিয়ে এভাবে ভাবাটা ঠিক নয়। এগুলো নিয়ে আম্পায়ারের সঙ্গে কথা বলে আমরা ঠিক করে নিই।’