মেইন ম্যেনু

প্রথমবারের মতো মুখ খুললেন পানামা পেপার্সের সূত্র

প্রথমবারের মতো মুখ খুললেন পানামার আইনি পরামর্শক প্রতিষ্ঠান মোসাক ফনসেকার গোপন নথি ফাঁসকারী সূত্র। ১ হাজার ৮০০ শব্দের লেখা ওই বিবৃতিতে তিনি কোনো গোয়েন্দা সংস্থার কিংবা সরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা নন বলে দাবি করেছেন।

শুক্রবার বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

গত মাসে মোসাক ফনসেকার ১ কোটি ১৫ লাখ গোপন নথি ফাঁস হলে বিশ্বজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। বিশ্বের বহু দেশের বর্তমান ও প্রাক্তন রাষ্ট্রপ্রধান, রাজনীতিবিদ, ধনী ব্যবসায়ী, তারকা কর ফাঁকি দিতে মোসাক ফনসেকার সহযোগিতায় অন্য দেশে ভুয়া অফশোর কোম্পানি খুলতেন। এসব নথিতে ওই সব ব্যক্তিদের নাম-পরিচয় উঠে আসে। গত মাসে জার্মানির দৈনিক জিটডয়েচ সাইতং। পরে এসব তথ্য শেয়ার করা হয় আন্তর্জাতিক অনুসন্ধানী সাংবাদিক সংস্থার (আইসিআইজে) সঙ্গে। পরে আইসিআইজে বিশ্বের ৭০টিরও বেশি গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে এসব তথ্য শেয়ার করে।

পানামা পেপার্স ফাঁসকারী অজ্ঞাত ওই সূত্রটি নিজের নাম ‘জন ডোয়ি’ বলে দাবি করেছেন। তিনি দায়মুক্তির বিনিময়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

পানামা পেপার্স ফাঁসের কারণ হিসেবে তিনি ‘আয় অসমতা’ বলে উল্লেখ করেছেন।

বিবৃতিতে জন ডোয়ি বলেন, আমদের সময়ে আয়ের সমতা একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। পানামা পেপার্স থেকে হাজার হাজার অভিযোগ দাঁড় করানো সম্ভব যদি কেবল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রকৃত তথ্যগুলো হাতে পায় এবং এগুলো মূল্যায়ন করে।’

তিনি বলেন, ‘ যাইহোক আমার পক্ষে যতোটুকু সম্ভব আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতা করতে চাই। তবে ন্যায়সঙ্গত তথ্য ফাঁসকারী চাই সে ভেতরের হোক অথবা বাইরের তারা সরকারের কাছে দায়মুক্তি প্রাপ্য।’