মেইন ম্যেনু

প্রধান বিচারপতির অপসারণ চাইলেন অপু উকিল

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার অপসারণ চাইলেন আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন যুব মহিলা সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল। তিনি বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি ষড়যন্ত্র করছেন। তিনি বিএনপি সুরে কথা বলছেন। আমরা তার অপসারণ চাই।’

শনিবার বিকালে কৃষিবিদ ইস্টটিটিউট মিলনায়তনে যুব মহিলা লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় অপু উকিল এ কথা বলেন।

গত ৩ জুলাই সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে আপিল বিভাগ। ১ আগস্ট প্রকাশ হয় পূর্ণাঙ্গ রায়। এই রায়ে তিনি ষোড়শ সংশোধনীর বিষয়বস্তুর বাইরে গিয়ে শাসন ব্যবস্থা, সংসদ, নির্বাচন কমিশন, রাজনৈতিক সংস্কৃতি নিয়ে নানা কথা বলেন।

সংসদকে অপরিপক্ক, অকার্যকর বলেও মন্তব্য করা হয় রায়ে। রায়ের পর্যবেক্ষণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অবমাননার অভিযোগও করছে সরকার।

খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম আগস্টের মধ্যে প্রধান বিচারপতিকে দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। নইলে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার হুমকি দিয়েছেন। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, প্রধান বিচারপতি বঙ্গবন্ধুকে অবমাননার মত ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন।

এরই মধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে ‘অবমাননাকর’ মন্তব্য বাতিলে উদ্যোগ নেয়ার কথা বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে সরকারসমর্থক আইনজীবীদের পক্ষ থেকে তিন দিনের কর্মসূচিও ঘোষণা করা হয়েছে।

অপু উকিল বলেন, ‘সুরেন্দ্র কুমার সিনহা হিন্দু নন। আমরা জানতে পারছি স্বাধীনতার সময় তিনি শান্তি কমিটিতে ছিলেন। এ শান্তি কমিটির প্রধান লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য ছিলো হিন্দু নিধন। তাই একজন হিন্দু কিভাবে শান্তি কমিটিতে যোগ দেন?’।

যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজমা আকতারের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক হারুনুর রশীদ, কার্যনির্বাহী সদস্য পারভীন জামান কল্পনা, মেরিনা জাহান, যুব মহিলা লীগের সহ-সভাপতি জাকিয়া পারভীন মনি, কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খোদেজা নাছরীন, জেদ্দা পারভীন খান রিমি, সাংগঠনিক সম্পাদক সালমা ভূঁইয়া চায়না, শারমিন সুলতানা লিলি, শারমীন সুলতানা শরমী প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই