মেইন ম্যেনু

প্রভাষকের নামে হতদরিদ্রের কার্ড!

ঠাকুরগাঁয়ের রানীশংকৈল উপজেলায় হতদরিদ্রদের জন্য ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রির তালিকায় আ.লীগ নেতা প্রভাষক সফিকুল আলমের নাম থাকায় এলাকায় আলোচনার ঝড় উঠেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ৮ নং নন্দুয়ার ইউনিয়নের বিধি মোতাবেক হতদরিদ্রের তালিকা প্রস্তুত করার কমিটি রয়েছে। এ কমিটি ১৪২০ জনের নামের তালিকা প্রস্তুত করেছে সে তালিকায় প্রভাষক সফিকুল আলমের নামও রয়েছে। ১ম দফায় ইতোমধ্যে চাল বিক্রি শুরু হয়েছে।

চাল বিক্রির তালিকায় রানীশংকৈল ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক উপজেলা আ.লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সফিকুল আলমের (কার্ড নং-১০০৮) নাম থাকায় এলাকায় ব্যাপক আলোচনা চলছে।

এ প্রসঙ্গে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান আবু সুলতান বলেন, আমি এ কমিটির শুধু একজন সদস্য। আমার এখানে তেমন কোনো ক্ষমতা নেই। আমিও শুনেছি প্রভাষক সফিকুল আলমের নাম হতদরিদ্রদের তালিকায় রয়েছে। তবে তিনি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

এ বিষয়ে তালিকা প্রস্তুত কমিটির সচিব ও ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সোহেলের সঙ্গে কথা হলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে বলেন, তালিকা ছাড়া সঠিক তথ্য দেয়া যাচ্ছে না।

হতদরিদ্রদের তালিকায় প্রভাবশালীদের নাম থাকা প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার মো.নাহিদ হাসান বলেন, রোববার কমিটির মিটিং ডেকে সফিকুল আলমের নাম প্রত্যহার করা হবে।

এ ব্যাপারে প্রভাষক সফিকুল আলম বলেন, কেউ ষড়যন্ত্র করে আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য এ কাজটি করেছে।

ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের এমপি অধ্যাপক ইয়াছিন আলী বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। কার্ডটি বাতিল করার ব্যাপারে তাকে আমি বলেছি।