মেইন ম্যেনু

প্রস্তুতি ম্যাচটা কাজে দিয়েছে: মুশফিক

চলতি বছরে ব্যাট হাতে ভালোই কাটছিল মুশফিকুর রহিমের। বিশ্বকাপেও বাংলাদেশের জয়ের পেছনে দারুন অবদান রেখেছিলেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। কিন্তু ঘরের মাঠে পাকিস্তান সিরিজের পর ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ব্যাট আর কথা বলছিল না। তবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে খেলা ৮১* রানের ইনিংসই তাকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে বলে জানান প্রথম ওয়ানডে ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় মুশফিক।

সম্প্রতি শেষ হওয়া ১৭তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) ছয় ইনিংসেও বড় রানের দেখা পাননি মুশফিক। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ফতুল্লায় প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে নির্বাচকদের কাছে দাবী জানিয়েছিলেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। প্রস্তুতি ম্যাচে ৮১ রানের অপরাজিত ইনিংসটাই তার হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে দিয়েছিল।

সে ধারবাহিকতায় শনিবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নিজের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে চতুর্থ সেঞ্চুরিও কওে ফেলেন তিনি। ম্যাচ শেষে স্বাগতিক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার সঙ্গে চওড়া হাসি নিয়ে সাংবাদিকদের সামনে আসেন মুশফিক।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘প্রস্তুতি ম্যাচটি আমি নিজ থেকেই খেলতে চেয়েছি। জাতীয় লিগে অনেকগুলো ইনিংস খেলেছি; কিন্তু আমার স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী রান করতে পারিনি। প্রস্তুতির একটু ঘাটতি ছিল। তাই কোচকে অনুরোধ করেছিলাম যেন ব্যাটিংটা একটু করতে পারি।’

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্ততি ম্যাচে হার না মানা ৮১ রান করলেও সেদিন দল হেরেছিল। তবে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১০৭ রানের ইনিংসের সুবাদে মুশফিক হন ম্যাচ সেরা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘প্রস্তুতি ম্যাচটি খেলে রান করে কিছুটা ভালো লেগেছে। হয়ত শুরুতে একটু কষ্ট হয়েছে, তবে আমি বুঝতে পেরেছিলাম যে টাচে আছি। আমার শুধু উইকেটে একটু সময় লাগবে, এতটুকুই। ওটার জন্যে আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। আজকে (শনিবার উইকেটে গিয়ে যখন পাঁচ-সাতটা বল ভালো খেললাম। তখনই বুঝতে পারলাম স্বাভাবিক খেলাটা খেললে বড় স্কোর হবে।’