মেইন ম্যেনু

প্রায় দ্বিগুণ বরাদ্দ পাচ্ছে ইসি

২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) এক হাজার ৪৮৫ কোটি ৯২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। ২০১৪-১৫ সালে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল ৭২৮ কোটি ৪৮ লাখ টাকা।

তবে সংশোধিত বাজেটে ইসিকে আরও ১২০ কোটি ৮০ লাখ ৭৭ হাজার টাকা পুনরায় বরাদ্দ দেওয়া হয়। এতে মোট বরাদ্দ দাঁড়ায় ৮৪৯ কোটি ২৮ লাখ ৭৭ হাজার টাকা।

জাতীয় সংসদে বৃহস্পতিবার বিকেল অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উত্থাপন করেন।

প্রস্তাবিত বাজেটে নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতাসহ অনুন্নয়ন খাতের (রাজস্ব) জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয় ৫২১ কোটি ৩৬ লাখ টাকা।

এ অর্থে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়েরর কর্মকর্তা-কর্মচারী, নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (ইটিআই), ছবিসহ ভোটার তালিকা ও জাতীয় পরিচয় পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগ (এনআইডি), আঞ্চলিক নির্বাচন অফিস, জেলা নির্বাচন অফিস এবং উপজেলা/থানা নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সারা বছরের বেতন-ভাতা নির্বাহ হবে।

এ ছাড়া জাতীয় সংসদের উপ-নির্বাচনসহ বিভিন্ন নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে মোট আটটি উন্নয়ন খাতে ৯৬৪ কোটি ৫৬ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

খাতগুলো হল— উন্নতমানের (স্মার্ট) জাতীয় পরিচয় পত্র প্রদান, জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য যাচাই/শনাক্তকরণ সংক্রান্ত সুবিধা প্রদান এবং ইসির প্রাতিষ্ঠানিক উন্নয়ন, নির্বাচন প্রক্রিয়া ও নির্বাচন ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত রাখা। ছবিসহ ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম, সিটি করপোরেশন সাধারণ নির্বাচন ও উপনির্বাচন অনুষ্ঠান, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন, ডাটাবেইজ সংরক্ষণের জন্য অবশিষ্ট উপজেলা/জেলা/আঞ্চলিক সার্ভার স্টেশনভবন নির্মাণ, নির্বাচন কমিশন ভবন ও নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ভবন নির্মাণ করা প্রভৃতি।