মেইন ম্যেনু

প্রেমিকের উপেক্ষার শিকার? যে ৭টি কারণে এমনটা ঘটে

বহু বিষয় নিয়ে সম্পর্কে টানাপড়েন শুরু হয়। মেয়েদের মনে প্রায়ই অশান্তি তৈরি করে একটি পরিস্থিতি। তা হলো, প্রেমিকাকে এড়িয়ে যাওয়া বা উপেক্ষা করা বা অবহেলার একটা প্রবণতা প্রেমিকের মধ্যে লক্ষ্য করা যায়। এমনটা বিবাহিতদের মধ্যেও হতে পারে। নেপথ্যে যে আপনার দোষ-ত্রুটি রয়েছে তা নয়। আবার ছেলেটি তার প্রেমিকা বা স্ত্রীকে পছন্দ করছেন না, তাও নয়। এর পেছনে অন্য কিছু কারণ থাকে যা বিবেচনায় রাখতে হয়। এখানে জেনে নিন এমনই ৭টি বিষয়ের কথা। যার কারণে প্রেমিক বা স্বামী আপনাকে উপেক্ষা করতে পারেন।

১. একান্ত সময় প্রয়োজন : প্রত্যেক মানুষের একাকী এবং ব্যক্তিগত সময় দরকার। দেহ ও মনকে চার্জ করতে এর প্রয়োজন পড়ে। হয়তো সব সময় দুজন একসঙ্গেই আছেন। এর মাঝে প্রত্যেকেরই আলাদা একান্ত সময়ের প্রয়োজন রয়েছে। আর এটা না পেলে প্রেমিক কিছু সময় প্রেমিকাকে উপেক্ষা করবেন।

২. পরিবারকে সময় দিতে চান : প্রেমিকের কিছু সময় প্রয়োজন যা তার পরিবারের সঙ্গে ব্যয় করতে পারেন। পারিবারিক কাজও থাকতে পারে। যেকোনো সময় ডেটিংয়ের সময়ট প্রেমিক দিতে পারেন না। এর অর্থ হতে পারে তার পারিবারিক কাজ আছে। আর তখনই তিনি প্রেমিকাকে এড়ানোর চেষ্টা করবেন।

৩. মনটা দারুণ খারাপ : হয়তো প্রেমিকা এমন কিছু করেছেন বা বলেছেন যা তার মন ভেঙে দিয়েছে। তাই তিনি বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চাইছেন না। অথবা কোন কিছুই তার ভালো লাগছে না। এ অবস্থায় ছেলেটি মেয়েটিকে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে পারেন। বিষয়টি বুঝতে হবে এবং তাকে সময় দেওয়া প্রয়োজন।

৪. হিংসা করছেন : হয়তো অন্য কোনো ছেলে প্রেমিকার বন্ধু হওয়ার চেষ্টা করছেন। অথবা যে কাজেই হোক অন্য বন্ধুকে বেশি সময় দিচ্ছেন প্রেমিকা। এমন হলে প্রেমিক হিংসায় জ্বলতে পারেন। আর সেই ক্ষোভ থেকে অবহেলা বা উপেক্ষার প্রবণতা দেখা দিতেই পারে।

৫. ব্যস্ততা : লেখাপড়া বা ক্যারিয়ার বা যেকোনো কাজে সত্যিকার অর্থে ব্যস্ত থাকলে ছেলেদের পক্ষে প্রেমিকাকে সময় দেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। তখন দেখা করা বা ঘুরতে যাওয়ার বিষয়গুলো এড়িয়ে যেতেই হয়। এসব ক্ষেত্রে প্রেমিকার বিষয়টি বুঝতে হবে এবং এ নিয়ে মন খারাপ করলে চলবে না।

৬. খুব বেশি ভালোবাসেন : এটাও ঘটে ছেলেদের মাঝে। তিনি হয়তো মেয়েটিকে খুব বেশি ভালোবাসেন। তাই অজানা আশঙ্কায় তিনিও পেরেশান হয়ে পড়েন। আর তখন কিছুটা সময় একটু দূরে থাকার চেষ্টা করেন। এটা খারাপ কিছু নয়। বরং প্রেমিকাকে বেশি ভালোবাসার ফলাফল।

৭. তিনি বিভ্রান্ত : ভালোবাসা তার গতিতে গড়াচ্ছে। কিন্তু প্রেমিক তার মনের ভাবনা এবং অনুভূতি নিয়ে কিছুটা বিভ্রান্ত থাকলে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে পারেন। যদি সত্যিকার অর্থে দীর্ঘমেয়াদি সম্পর্কের কথা ভেবে থাকেন, তবে নানা বিভ্রান্তি প্রেমিকের জন্যে চিন্তার কারণ হয়। আর তা পরিষ্কারভাবে বুঝতেই তিনি কিছুটা সময় একান্তভাবে খুঁজে থাকেন।