মেইন ম্যেনু

প্রেমিক-প্রেমিকার চেয়ে ল্যাপটপ ভাল!

প্রেম-ভালবাসায় কষ্ট পাবার সম্ভাবনা থাকলেও ল্যাপটপ আপনাকে কখনও কষ্ট দিবে না। আপনি যেকোন সময় আপনার ল্যাপটপের সাথে সময় অতিবাহিত করতে পারবেন। সারাদিন ইন্টারনেট চালাতে পারবেন, কোন দুশ্চিন্তা নেই।

যে কোন রোমান্টিক সম্পর্কের চেয়ে একা থাকা ও নিজের মনমত সবকিছু করার মাঝে একটি আনন্দ থাকে। ল্যাপটপ প্রেমিকের চেয়ে কীভাবে ভাল, তা নিম্নে আলোচনা করা হল-

১. ল্যাপটপ কখনও আপনাকে নিয়ে বিশ্লেষণ করবে না। আপনি কখন কি করছেন, কেন করছেন এসব প্রশ্নের কোন উত্তর আপনাকে দিতে হবে না। আপনি যেকোনো সময় তাকে প্রশ্ন করুন, তার কোন সমস্যা নেই।

২. আপনি ঘণ্টার পর ঘণ্টা সামাজিক মাধ্যমে বসে বিভিন্ন বন্ধুদের সাথে কথা বলতে পারবেন। আপনার সাবেক প্রেমিক-প্রেমিকার সাথে কথা বললেও ল্যাপটপের কোন সমস্যা নেই।

৩. প্রেমিক-প্রেমিকার উপর আপনার অনেক সময় অনেক খরচ করতে হয়। ল্যাপটপে খরচ করতে হয় না, তা বলছি না। তবে এতে আপনি আপনার ইচ্ছামত খরচ করতে পারবেন। এই খরচ করার পর সকল সুবিধা আপনি নিজেই ভোগ করবেন।

৪. মুহূর্তেই প্রেমিক-প্রেমিকা পরিবর্তন করা যায় না, তবে আপনি ইচ্ছা করলেই আপনার পুরাতন ল্যাপটপ এর চেহারা পরিবর্তন করে ফেলতে পারেন।

৫. আপনার ল্যাপটপে বসে আপনি অন্যান্য ল্যাপটপের ছবি দেখলেও সে ঈর্ষান্বিত হবে না।

৬. আপনি কখনও ল্যাপটপ চালিয়ে বোর হবেন না। একটা প্রোগ্রাম ভাল না লাগলে আরেকটায় চলে যাবেন। এটি কখনও আপনার কথা অমান্য করবে না।

৭. আপনার যখন খুশি এতে কাজ করতে পারেন আবার যখন খুশি বন্ধ করে রাখতে পারেন। এটা কখনও মন খারাপ করবে না।

৮. ল্যাপটপ যদি কখনও আপনাকে কষ্ট দেয়, তাহলে শুধু এর ডিভাইসে সমস্যা হতে পারে। যা পরিবর্তন করলেই আপনার সকল সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

৯. আপনার কোন বিষয়ের প্রতি কতটুকু প্রাইভেসির প্রয়োজন আছে, তা ল্যাপটপ খুব ভালভাবে বুঝে। তাই এতে সকল ধরণের প্রাইভেসির অপশন রয়েছে।

১০. আপনি ল্যাপটপ থেকে ইচ্ছা করলেই অনেক কিছু শিখতে পারবেন। শুধু আপনার গুগলের কথা মনে রাখতে হবে। তাহলেই সবকিছু চলে আসবে আপনার হাতের মুঠে।–সূত্র: মেট্রো।