মেইন ম্যেনু

প্রেমের নামে ছেলেমেয়েদের অতি মেলামেশা সম্পর্কে পবিত্র কোরআন যা বলছে

আজকালকার আধুনিক ছেলেমেয়েদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা প্রেমের নামে এখানে সেখানে অবাধে ঘোরাফেরা করে থাকেন। কিন্তু ছেলেমেয়েদের অবাধ মেলামেশা সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে কি বলা হয়েছে তা কি জানেন? মহান আল্লাহ তা’য়ালা অবিবাহিত ছেলেমেয়েদের প্রেমকে হারাম করেছেন। এবং বিবাহিত স্বামী-স্ত্রী’র প্রেমকে জায়েজ করেছেন।

এ সম্পর্কে মহান আল্লাহ তা’য়ালা পবিত্র কোরআনে সূরা আল মায়িদার মধ্যে বলেছেন, ‘স্বাধীনভাবে লালসা পূরণ কিংবা লুকিয়ে অবাধ মেলামেশা করবে না।’ (সূরা আল মায়িদা: ৫)

এরপর আল্লাহ পাক সূরা নূর এর ৩০ নং আয়াতে পুরুষদের চোখ নিচু রাখতে এবং লজ্জা স্থান হিফাজত করতে বলেছেন।

৩১ নং আয়াতে নারীদেরও একই কথা বলা হয়েছে, পর্দা করার কথা বলা হয়েছে আর নারীরা কাদের সাথে সাক্ষাত করতে পারবে তাদের একটা তালিকা দেওয়া হয়েছে।

সূরা আহযাবের ৫৯ নং আয়াতে পর্দা করার নির্দেশ আরো পরিষ্কার ভাষায় বলা হয়েছে। যেখানে দৃষ্টি নিচু ও সংযত রাখা, লজ্জা স্থান হিফাজত করার কথা এবং পর্দা করার কথা বলা হয়েছে আর সূরা মায়িদাতে গোপন প্রেমলীলাকে নিষেধ করা হয়েছে সেখানে বিবাহ পূর্ব প্রেম বৈধ হতে পারে কি করে? এটা হারাম।

বিবাহপূর্ব প্রেম অনেক সময় বান্দাকে শিরকের নিকটবর্তী করে দেয়। কারণ অনেক সময় তারা একে অপরকে এতটাই ভালবাসা শুরু করে দেয় যে প্রকার ভালবাসা পাওয়ার দাবীদার একমাত্র আল্লাহ। (সূরা বাকারাঃ ১৬৫)

শয়তান তো চায়, মদ ও জুয়ার মাধ্যমে তোমাদের পরস্পরের মাঝে শুত্রুতা ও বিদ্বেষ সঞ্চারিত করে দিতে এবং আল্লাহর স্মরণ ও নামায থেকে তোমাদেরকে বিরত রাখতে। অতএব, তোমরা এখন ও কি নিবৃত্ত হবে? সূরা আল মায়েদাহ, আয়াত নং ৯০ থেকে ৯১।