মেইন ম্যেনু

প্রেম করার অপরাধে স্কুল ছাত্রীকে ১ মাস শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতন চালিয়েছে পরিবার

কল্যান কুমার চন্দ, বরিশাল থেকে: প্রেম করে প্রেমিকের সাথে পালিয়ে যাওয়ার অপরাধে এস,এস,সি পরিক্ষার্থী এক ছাত্রীকে তার মায়ের সহযোগীতায় খালার বাড়িতে ১মাস ধরে হাতে পায়ে সিকল পরিয়ে গোপন কক্ষে আটক রেখে নির্যাতন করা হতো বলে নির্যাতিত ওই ছাত্রী অভিযোগ করেছে। এ ঘটনা বরিশালের উজিরপুর পৌর সদরের রাখালতলা সড়কের সাঈদুর রহমানের বাড়িতে ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে (১০ মার্চ) উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্য মোঃ নুরুল ইসলাম বিষয়টি জানতে পেরে এস,আই গাজী শামিম ও এস,আই, আশিষ সরকারকে সাথে নিয়ে সাঈদুর রহমানের বাড়িতে হানা দিলে ২ হাতে ও পায়ে সিকল বাঁধা অবস্থায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে। এ সময় তার খালা রুমা বেগম (২৫) পালিয়ে গেলেও ছাত্রীর মা পারভিন বেগম (৩৫) ও খালার পরকিয়া প্রেমিক সোহেল গোমস্তা (৩০) কে আটক করেছে পুলিশ।

উজিরপুর উপজেলার বরাকোঠা ইউনিয়নের চৌমুহনি এলাকার সৌদি প্রবাসী রাশেদ হাওলাদারের এস,এস,সি পরিক্ষার্থী কন্যা ফাতেমা আক্তার অমি (১৫) বৃহস্পতিবার বিকালে উজিরপুর মডেল থানায় বসে গনমাধ্যম কর্মিদের নিকট অভিযোগ করে বলেছেন বরাকোঠা গ্রামের মন্নান শরীফের পুত্র রুহুল আমিনের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক থাকায় ১৭ জানুযারী তারা ২ জনে পালিয়ে গিয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলে তার মা পারভিন বেগম থানায় অভিযোগ করলে অমি ও রুহুল আমিনকে থানা পুলশ আটক করে । পরে আদালত থেকে অমিকে তার মায়ের জিম্মায় নিয়ে এসে গত ১ মাস যাবৎ উজিরপুর পৌর সদরের রাখালতলা সড়কের খালা রুমা বেগমের বাসায় হাতে পায়ে সিকল পরিয়ে গোপন একটি কক্ষে আটক করে রাখে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সিকল পরিহিত অবরুদ্ধ অমি সকলের অগোচরে প্রতিবেশি একজনের মোবাইল ফোন দিয়ে উজিরপুর থানার ওসিকে বিষয়টি জানিয়ে তাকে উদ্ধারের আকুতি জানালে ওসি নুরুল ইসলাম পিপিএম তাৎক্ষনিক এস,আই,গাজী শামিম ও এস,আই,আশিষ সরকারকে সাথে নিয়ে রাখালতলা সড়কের অমির খালু সাঈদুর রহমানের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অমিকে উদ্ধার করে এবং তার মা পারভিন বেগম ও খালার পরকিয়া প্রেমিক সোহেল গোমস্তাকে আটক করে ।

এ ব্যাপারে উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্য মোঃ নুরুল ইসলাম পিপিএম জানিয়েছেন উদ্ধারকৃত অমি বাদী হয়ে সে একটি মামলা দায়ের করেছে।