মেইন ম্যেনু

প্রেম, বিচ্ছেদ ও যৌনজীবন প্রসঙ্গে একি বললেন কালকি?

কোন বলিউড অভিনেত্রী সাধারণত নিজেদের ব্যক্তিগত প্রসঙ্গে মিডিয়াতে মুখ খোলেন না। কিন্তু সবকিছুতেই ব্যতিক্রম অভিনেত্রী কালকি কোয়েচলিন। সম্প্রতি এলে ম্যাগাজিনে একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন তিনি। সেখানে ব্যক্তিগত গোপন প্রসঙ্গে অনেক কিছু জানালেন কালকি। সেখানে ছিল নিজের জীবনের প্রেম, বিচ্ছেদ ও যৌনতাসহ বেশ কিছু বিতর্কিত প্রসঙ্গ।

প্রেম

নির্মাতা অনুরাগ কাশ্যপের সঙ্গে প্রেম ছিল কালকির। দুজনে বিয়েও করেছিলেন। কিন্তু সেই বিয়ে টেকেনি। তারপর একাধিক পুরুষের সঙ্গে জড়িয়েছে অভিনেত্রীর নাম। প্রথমে অধুনার সঙ্গে বিচ্ছেদের পর কালকির সঙ্গে জড়িয়েছিল বলিউড অভিনেতা-নির্মাতা ফারহান আখতারের নাম। তারপর অভিনেতা জিম সারভের সঙ্গেও কালকির নাম জড়ায়। শুধু তাই নয়, ‘মার্গারিটা উইথ অ্যা স্ট্র’ ছবির স হ অভিনেত্রী সায়নী গুপ্তর সঙ্গেও নাম জড়িয়েছিল কালকির। ম্যাগাজিনে সাক্ষাৎকারে কালকি জানিয়েছেন, তিনি সময়ের সঙ্গে অনেক কিছু শিখেছেন। শিখেছেন কখন মিডিয়ার সামনে আসতে হয়, কিভাবে ব্যক্তিগত বিষয়গুলিকে একেবারে ব্যক্তিগত রাখতে হয়। তিনি সবসময়েই অকপট। কিন্তু তার মানে এই নয় যে তার জীবনটা জনগনের সম্পত্তি।

বিচ্ছেদ
সাক্ষাৎকারে কালকি জানিয়েছেন, অনুরাগকে ছেড়ে দেওয়ার পর খুব খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। প্রথম বছরটা খুব খারাপ কেটেছিল। তিনি বড় হয়েছেন বোর্ডিং স্কুলে। বাড়িতেও সবার সঙ্গে থাকতেন। একা কখনও থাকেননি। কিন্তু অনুরাগের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর একাই থাকতে হয়েছিল তাকে। কিন্তু তিনি এটা জানতেন যে একা থাকা তাকে শিখতে হবে। এখন তিনি তা শিখেছেন।

যৌনতা
নিজের যৌন জীবন নিয়েও সাক্ষাৎকারে বলেছেন কালকি। জানিয়েছেন, তিরিশ বছরের পর থেকে যৌনতা তার জীবনে ভালোভাবে এসেছে। তিনি বললেন, এখন তিনি বিছানায় অনেক বেশি স্বার্থপর। পার্টনারের বিষয়ে তিনি এখন অনেক বেশি ব্যস্ত। সহ্য ক্ষমতা তার এখন অনেক কম। তিনি মনে করেন, কেউ তাকে পছন্দ করলেই তাকেও সেই ব্যক্তিকে পছন্দ করতে হবে, এমন কোন কথা নেই। তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে সাধারণত এটাই হয়। বয়স যত বাড়ে, নতুন কিছু পাওয়া যায়।

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত ছবি ‘অ্যা ডেথ ইন দ্য গুঞ্জ’ ছবির ট্রেলার। ছবিটি পরিচালনা করেছেন কঙ্গনা সেন শর্মা। এরপর সোনি রাজদানের ছবি ‘লাভ অ্যাফেয়ার’ এ অভিনয় করবেন তিনি। নানাবতী কেস নিয়ে তৈরি হবে ছবিটি।