মেইন ম্যেনু

প্রেশার কুকারে ভাপা সন্দেশ

হ্যাঁ, নাম শুনেই বুঝতে পারছেন রেসিপিটা কিসের। সন্দেশ পছন্দ করেন না এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া ভার। আর এই ভাপা সন্দেশ তৈরি হয়ে যাবে খুবই সহজে, এক ঘণ্টারও কম সময়ের মাঝে। তৈরির জন্য প্রেশার কুকার ব্যবহার করা হয় বলে রাঁধুনির কষ্টটাও হয় কম। চলুন দেখে নিই রেসিপিটি।

উপকরণ
– ২ লিটার দুধ
– ৬/৭ টেবিল চামচ চিনি
– একটি বড় লেবুর রস ২ চামচ পানির সাথে মেশানো
– এক চিমটি এলাচ গুঁড়ো
– ২/৩ টেবিল চামচ পেস্তাবাদাম গুঁড়ো
– জাফরান (ইচ্ছা)

প্রণালী
১) বড় একটি পাত্রে দুধ ফুটিয়ে নিন। ক্রমাগত নাড়ুন। দুধ ফুটে এলে আঁচ কমিয়ে দিন। এতে লেবুর রস দিয়ে নেড়ে দিন। দুধ কেটে যাওয়া শুরু করলে আঁচ থেকে নামিয়ে নিন। এভাবেই রেখে দিন ৫-৭ মিনিট।
২) একটি পাতলা সুতি কাপড়ে এই ছানা নিয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। ছানাটা কিছুক্ষণ পানিতে ধুয়ে নিতে পারেন, এতে লেবুর গন্ধ চলে যাবে। কাপড়টায় ছানা পুঁটলি করে বেঁধে ঝুলিয়ে রাখুন আধা ঘন্টা।
৩) এবার ছানাটাকে একটি পাত্রে নিয়ে এর সাথে চিনি মেখে নিন। মাখিয়ে নরম হয়ে এলে এতে এলাচ গুঁড়ো দিয়ে আবার মেখে নিন। হাতে তেল উঠে এলে এতে কুচি করা পেস্তাবাদাম দিয়ে মাখিয়ে নিন।
৪) একটি স্টিলের টিফিন বক্স (প্রেশার কুকারের ভেতরে দেওয়া যাবে এমন আকৃতির) নিয়ে এর ভেতরের দিকে মাখন মাখিয়ে নিন। এর ভেতরে ছানাটা দিয়ে দিন। ওপরে ইচ্ছে করে অল্প করে জাফরান ছড়িয়ে দিতে পারেন। ঢাকনা দিয়ে দিন।
৫) একটি প্রেশার কুকারে এক কাপ পানি দিয়ে এর ভেতরে টিফিন বক্সটা বসিয়ে দিন। প্রেশার কুকারের ঢাকনা থেকে ভালভটা খুলে নিন (যাতে সিটি না দেয়)। কম আঁচে এটা চুলায় রাখুন ১৫ থেকে ২০ মিনিট। ইচ্ছে হলে মাইক্রোওয়েভেও কাজটি করতে পারেন। মিশ্রণটি মাইক্রোওয়েভ-প্রুফ পাত্রে নিয়ে ৫-৮ মিনিট মাইক্রোওয়েভ করতে পারেন।
৬) বের করে রুম টেম্পারেচারে ঠাণ্ডা হতে দিন। এরপর আধা ঘন্টা ফ্রিজে রাখুন।

ফ্রিজ থেকে বের করে কেটে পরিবেশন করুন ভাপা সন্দেশ। ওপরে দিতে পারেন কিছু বাদাম ও শুকনো ফল।