মেইন ম্যেনু

প্রয়োজনে ভাইবার-হোয়াটসঅ্যাপ বন্ধ রাখা হবে

সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধে প্রয়োজনে জনপ্রিয় সোশ্যাল সাইট ভাইবার-হোয়াটসঅ্যাপ সাময়িকভাবে বন্ধ করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংসদ সদস্য হাজী মো. সেলিম প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানতে চান সাইবার ক্রাইম বন্ধে ভাইবার-হোয়টসঅ্যাপ বন্ধ করার কোনো পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে কিনা। এ প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এমন তথ্য জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সন্ত্রাসীদের খুঁজে বের করার জন্য, জঙ্গিবাদ দমন করার জন্য এবং সাইবার ক্রাইম বন্ধে প্রয়োজন হলে কিছুদিনের জন্য ভাইবার-হোয়াটস আপ বন্ধ রাখা হবে। কারণ কোন প্রকার জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ বরদাস্ত করা হবে না। দেশের মানুষের শান্তির জন্য যা করা প্রয়োজন তাই করা হবে।’

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে দেশ যখন প্রযুক্তিগতভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তখন এক শ্রেণীর লোক প্রযুক্তির সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে ক্রাইম করছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যারা স্বাধীনতা বিরোধী, যারা মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী, যারা বিএনপি-জামায়াতপন্থি তারাই এ ধরনের কাজে জড়িত।’ যারা এ ধরনের অপরাধে জড়িত তাদেরকে ধরিয়ে দিতে সব সাংসদ, সাধারণ মানুষ ও সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বানও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ভাইবার-হোয়াটস অ্যাপের মত ইন্টারনেট ভিত্তিক অ্যাপসগুলোতে কথা বললে সেখানে সরকার কোনো ধরনের নজরদারি করতে পারে না। এ সুবিধা গ্রহণ করে এক শ্রেণীর অপরাধী তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে। যা প্রতিরোধে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো নিয়ন্ত্রকের ভূমিকা পালন করা যায় কি-না জানতে চান হাজি সেলিম। তবে যোগাযোগের প্রযুক্তিগত এ সুবিধাটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করার কোনো কথা জানাননি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।