মেইন ম্যেনু

ফখরুলরা রুট বদল করায় নিরাপত্তা ছিল না : ওসি রাঙ্গুনিয়া

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে পাহাড় ধসে দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ দিতে গিয়ে রাঙামাটিতে হামলার শিকার হয়েছে বিএনপির একটি প্রতিনিধিদল। এতে মির্জা ফখরুল, স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ দলের বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতা আহত হয়েছেন। রোববার বেলা ১১টার দিকে রাঙ্গুনিয়ার ইছাখালি এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলার পর রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি ইমতিয়াজ আহমেদ ভূঁইয়া ঘটনাস্থলে যান। এ সময় তিনি বিএনপি নেতাকর্মীদের তোপের মুখে পড়েন।

হামলার শিকার বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ওসিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আপনারা আমাদের নিরাপত্তা নিতে ব্যর্থ হয়েছেন। এ কারণেই আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে।’

তবে রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমতিয়াজ ভূঁইয়া বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, হামলার বিষয়টি তাকে জানানো হলেও দলের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

তিনি দাবি করেন, ‘মির্জা ফখরুলের অন্য রুট দিয়ে রাঙামাটি যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তারা রুট বদল করে যাচ্ছিলেন বলে সেখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।’

তবে চট্টগ্রাম ফিরে যাবার পথে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

এদিকে হামলার জন্য বিএনপি নেতারা ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতা ও ওই এলাকার সংসদ সদস্য ড. হাছান মাহমুদের সমর্থকদের দায়ী করেছেন।

আমীর খসরু বলেন, ‘হামলার সময় দুর্বৃত্তরা জয় বাংলা স্লোগান দেয়। আমরা যে কীভাবে জীবন নিয়ে বের হয়ে আসছি, জীবন নিয়ে যেতে পারব, এটা বিশ্বাস করি নাই। এ ধরনের আক্রমণ আমার জীবনে দেখি নাই।’

ঘটনার পর বিএনপির প্রতিনিধিদল রাঙামাটি না যেয়ে চট্টগ্রাম শহরে ফিরে যাচ্ছেন। সেখানে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ঘটনার বিস্তারিত জানাবেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।






মন্তব্য চালু নেই