মেইন ম্যেনু

ফলের সঙ্গে লবণ খাওয়া কি ঠিক?

আপনি কী লবণ ছাড়া খাবারের কথা ভাবতে পারেন? লবণ খাবারের স্বাদ বাড়ায়। তবে বেশি লবণ খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো না। অধিকাংশ সময় ফলের স্বাদ বাড়াতে আমরা লবণ ব্যবহার করি। এমনকি ফলের টকভাব কিছুটা দূর করতেও লবণ ব্যবহার করা হয়। তবে প্রশ্ন হলো আসলেই কি ফলের সঙ্গে লবণ খাওয়া জরুরি?

বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে লাইফস্টাইল বিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাই জানিয়েছে, ফলে লবণ যোগ করা অনেক কারণেই গুরুত্বপূর্ণ। লবণের মধ্যে রয়েছে সোডিয়াম ক্লোরাইড; যা আমাদের শরীরে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে। লবণের মধ্যে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান ফলকে পরিষ্কার করে এবং একে খাওয়ার জন্য নিরাপদ করে। এ ছাড়া লবণ যোগ করে ফল খাওয়ার রয়েছে আরো কিছু ভালো দিক। সেগুলো দেখে নেওয়া যাক…….

১. স্বাদ বাড়াতে

লবণ দিয়ে ফল খেলে এর স্বাদ বাড়ে। টকভাব কমে এবং মিষ্টি ফলের গন্ধ বাড়ায়। এই কারণে মানুষ সামান্য লবণ দিয়ে ফল খেতে পছন্দ করে।

২. কাটার পর কালচে ভাব রোধে

খাওয়ার জন্য ফলকে কাটা হয়। অনেক ফল কাটার পর কিছুক্ষণ রাখলে কালচে ভাব হয়। এই কালচে ভাব দূর করতে পানির মধ্যে সামান্য পরিমাণ লবণ দিয়ে ফল ভিজিয়ে রাখা যায়। এতে আর কালচে ভাব হয় না।

৩. অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান

বেশি দিন ফল রেখে দিলে এর মধ্যে ব্যাকটেরিয়া উৎপন্ন হতে পারে। ফলকে যদি বেশি লবণ দিয়ে সংরক্ষণ করা হয় তবে সেখানে ব্যাকটেরিয়া উৎপন্ন হতে পারে না।

৪. পরিষ্কারক

লবণ পরিষ্কারক হিসেবে কাজ করে। লবণ পানির মধ্যে ফল ভিজিয়ে রাখলে প্রেসটিসাইডস এবং অন্যান্য ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ দূর হয়।

৫. এসিডিটি দূর করে

উচ্চমাত্রার এসিডিক খাবার, বিশেষ করে সাইট্রাস এবং গ্র্যাপ জাতীয় ফল খেলে পাকস্থলীর এসিডিটি তৈরি হয়। এ ধরনের ফলে রয়েছে উচ্চ পরিমাণ ভিটামিন এবং আঁশ; তবে এটা এসিড তৈরি করে। এই সব খাবারে একটু লবণ যোগ করলে এসিডের ভারসাম্য রক্ষা হয় এবং হজমে সাহায্য করে। তবে যেসব লোকের খাবারে সোডিয়াম বা লবণ কম রাখার কথা বলা হয়েছে, তাদের ফলে লবণ যোগ করে খাওয়ার বিষয়ে কিছুটা সতর্ক হওয়ার কথাই বলেছেন বিশেষজ্ঞরা।