মেইন ম্যেনু

ফাঁসির মঞ্চ প্রস্তুত, জল্লাদও রেডি

মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ফাঁসি কার্যকরের প্রক্রিয়া দ্রুততার সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে। কারাগারের সবাই সতর্ক।দফায় দফায় বৈঠক চলছে।

এরই মধ্যে এই দুই যুদ্ধাপরাধীর স্বজনদের সঙ্গে সাক্ষাৎ পর্ব সম্পন্ন করা ছাড়াও রিভিউ খারিজের রায় পড়ে শোনানো এবং তাদের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদনের ইস্যুটি বাকি রেখেই প্রস্তুত করা হয়েছে ফাঁসির মঞ্চটিও। মঞ্চের ওপরে টাঙানো হয়েছে শামিয়ানা। প্রধান জল্লাদকেও প্রস্তুত রাখা হয়েছে। কারা কর্মকর্তাদের দৌড়ঝাঁপ এখন ফাঁসির মঞ্চকে ঘিরেই।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানিয়েছে, দুই ফাঁসির আসামির জন্য বিদেশ থেকে আনা হয়েছে ম্যানিলা রোপ। ওই রশিতে কলা ও ঘি মেখে তা নরম করার কাজও সম্পন্ন করে রাখা হয়েছে।

সূত্রটি বলছেন, বুধবার তাদের রিভিউ খারিজ হওয়ার পরই কারাগারের মধ্যে ফাঁসির মঞ্চ প্রস্তুতির কাজ সম্পন্ন করা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সাকা চৌধুরী ও মুজাহিদের পরিবারের সদস্যরা কারাগার থেকে সাক্ষাতের পরে তাদের ফাঁসি কার্যকরের বিষয়টি অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায়।

পরে রাত পৌনে নয়টার সময় আন্তর্জাতিক ট্রাইবুনাল থেকে দন্ডিতদের ফাঁসির রায় কারাগারে পৌছানোর পরে তাদের ফাঁসি কার্যকরের বিষয়টি এখন সময়ে ব্যাপার বলে মনে করছেন ওই কারাগারের কর্মকর্তা।

প্রসঙ্গত বুধবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে চারজন বিচারপতি মিলে আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদ ও সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর রিভিউ আবেদন খারিজ করে দেন।