মেইন ম্যেনু

ফাইনালে কুমিল্লার মুখোমুখি বরিশাল

ম্যাচের আগ থেকেই মানসিকভাবে পিছিয়ে ছিল বরিশাল বুলস। খেলতে পারছেন না ক্রিস গেইল। সেই সঙ্গে নেই চলতি বিপিএলের প্রথম সেঞ্চুরিয়ান এভিন লুইসও। এর উপর আগে টসে জিতে রংপুর রাইডার্স করল ১৬০ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর। এমন লক্ষ্য তাড়া করতে পারবেতো বরিশাল?

ভক্তদের মনে নানা শংকাই কাজ করছিল। কিন্তু না, সব শঙ্কা আর দ্বিধা যেন এক ফুতকারে উড়িয়ে দিল সাব্বির-নাফিস জুটি। যে জুটির উপর ভর করে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে রংপুর রাইডার্সকে ৫ উইকেটে পরাজিত করে দ্বিতীয় দল হিসাবে বিপিএলের ফাইনালে নাম লেখালো বরিশাল। বিদায় সাকিবের রংপুর রাইডার্স।

আগামী ১৫ ডিসেম্বর শিরোপা নির্ধারণী ফাইনালে মুখোমুখি হবে মাশরাফির কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও মাহমুদুল্লার বরিশাল বুলস।

খেলছেন না গেইল

গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। যে ম্যাচ জিতলেই মিলবে বিপিএলের ফাইনালের টিকিট। এমন ম্যাচের আগেই দুঃসংবাদটা শুনতে হলো বরিশাল বুলস সমর্থকদের। রোববার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে মুখোমুখি হয় বরিশাল বুলস ও রংপুর রাইডার্স। অথচ এমন ম্যাচেই বরিশালের হয়ে খেলতে পারলেন না জ্যামাইকান ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল। অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশে খেলতে মেলবোর্নের উদ্দেশ্যে রাতে সাড়ে দশটায় রওনা হন তিনি।

গেইলএবারের বিগ ব্যাশে মেলবোর্ন রেনেগেডসে খেলতে চুক্তিবদ্ধ গেইল। বিগ ব্যাশে রেনেগেডসের প্রথম ম্যাচ ১৯ ডিসেম্বর ব্রিসবেন হিটের বিপক্ষে। কিন্তু বিদেশি ক্রিকেটারদের সঙ্গে বিগ ব্যাশের দলগুলির চুক্তিই থাকে এইরকম যে সপ্তাহখানেক আগে দলের সঙ্গে যোগ দিতে হবে।

রোববার দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচের আগে টসের সময় গেইলের ফিরে যাওয়ার খবর নিশ্চিত করেন বরিশাল অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। তিনি বলেন, ‘বিগ ব্যাশ খেলতে চলে গেছে গেইল। আমরা অবশ্যই ওকে মিস করব।’ দীর্ঘদিন ধরে ভুগতে থাকা পিঠের চোট কাটাতে গত আগস্টে অস্ত্রোপচার করিয়েছিলেন গেইল। বিপিএল দিয়েই মাঠে ফিরেছেন চার মাস পর। এবার বিপিএলে চার ম্যাচ খেলে গেইলের রান ৮, ৮, অপরাজিত ৯২ ও ৩১।

তবে বরিশাল বুলস কর্তৃপক্ষ বলেছে, দল ফাইনালে গেলে ক্রিস গেইল আবার আসবেন। তবে এমনটি হওয়ার সুযোগ খুবই কম। কারণ আগামী মঙ্গলবারই ফাইনাল। এরই মধ্যে দুইবার দীর্ঘ বিমান ভ্রমণ কি সম্ভব ক্রিস গেইলের পক্ষে? প্রশ্ন থেকেই যায়।